বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর দেশের মানুষ আজ শান্তিতে বসবাস করছে-এমপি শাওন ঢাকায় নারী সাংবাদিক লাঞ্চিত,বরিশাল সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির নিন্দা ও প্রতিবাদ সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে বরিশাল অনলাইন সাংবাদিক ইউনিয়নের বিবৃতি প্রচন্ড তাপদাহে আমতলীতে বেড়েছে তালের শাঁসের কদর সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তকারীদের বিচার চাই-নারী মুক্তি সংসদ প্রচন্ড তাপদাহে একটু স্বস্তি পেতে আগৈলঝাড়ায় বিক্রি বেড়েছে তাল শাঁস ৮৭তম মৃত্যুবার্ষিকীতে মুকুন্দ দাসের স্মরণে চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের স্মরণানুষ্ঠান আয়োজিত  রোজিনা ইসলামকে হেনস্থায় জড়িতদের শাস্তি চাই-ওয়ার্কার্স পার্টি ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২৫০০ ডলার: পরিকল্পনামন্ত্রী শেবাচিমের সিসিইউ বিভাগে চরম দুরাবস্থা
পর্যটকদের মন কাড়ছে বরিশালের শাপলা বিল

পর্যটকদের মন কাড়ছে বরিশালের শাপলা বিল

আকিব মাহমুদ, বরিশালঃ “তুমি সুতোয় বেঁধেছ শাপলার ফুল নাকি তোমার মন” বিখ্যাত শিল্পী সুবীর নন্দীর কন্ঠে গাওয়া এই গান মন ছুয়ে যায় প্রেমিক প্রেমিকার হৃদয়। ঠিক তেমনি করেই শুধু মন নয় দুচোখ ছুয়ে ছাপিয়ে যায় বরিশালের উজিরপুরের লাল শাপলা। বরিশাল শহর থেকে থেকে মাত্র ৬০ কিলোমিটার দূরের উজিরপুর উপজেলার সাতলা বিলে দেখা মিলবে চোখজুড়ানো এমন দৃশ্যের। প্রকৃতির বুকে আঁকা এ যেন এক নকশি কাঁথা। অপরুপ এ সৌন্দর্য উজিরপুরের উত্তর সাতলা গ্রামের প্রায় এক হাজার ছয় শত হেক্টর জমি জুড়ে ছড়িয়ে আছে। আগাছা আর লতা-পাতায়, বিলের কোটি কোটি শাপলা, চোখ জুড়ায় পথচারিদের। বিলের যত ভেতরে যাওয়া যায়, ততই বাড়তে থাকে লালের আধিক্য। এ যেন এক শাপলার রাজ্য। এ বিলে ঠিক কবে থেকে, শাপলা জন্মাতে শুরু করেছে তা নিয়ে নেই সঠিক কোন তথ্য। তবে, স্থানীয় বয়স্কদের কাছ থেকে জানা যায় জন্মের পর থেকেই, এভাবে শাপলা ফুটতে দেখেছেন তারা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,সাধারণত সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসে এ বিলে লাল শাপলা ফুল ফোটে। ঐতিহ্যবাহি এ শাপলা বিলের চারপাশে গাঢ় সবুজের পটভূমিতে যেন বাংলার এক মুখরিত “শাপলার সাম্রাজ্য”। দূর থেকে সবুজের মধ্যে লাল রং দেখে দুরূহ হয়ে উঠার মতো অবস্থা। দূরত্ব কমার সাথে সাথে স্পষ্ট হয়ে ওঠে ফুলের অস্তিত্ব। আগাছা আর লতা পাতায় ভরা বিলের পানিতে ফুটন্ত লাল শাপলা সত্যিই সৌন্দর্যের এক লীলাভূমি। নৈসর্গিক সৌন্দর্যের ফুটন্ত লাল শাপলা দেখে সত্যিই চোখ জুড়িয়ে যায়। মনোমুগ্ধকর সাতলা বিলের শাপলা দেখতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ছুটে আসছেন ভ্রমন পিপাসু প্রকৃতি প্রেমিরা। শাপলার বিলে ঘুরতে আসা নাদিয়া,নীলিমা,রুপাসহ বেশ কয়েকজন নারী পর্যটক অভিযোগ করে বলেন এখানে এসে মন ভরে গেছে, কিন্তু কোথাও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যাবস্থা না থাকায় নারী পর্যটকদের বিপাকে পরতে হয়েছে। সাইফুল নামে আরেক পর্যটক জানান, এখানে পর্যটকদের জন্য ভাল মানের কোনো হোটেল বা রেস্টুরেন্ট নেই, ফলে আমাদের বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। এব্যাপারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বলেন, মূলত এই বিলটি একটি প্রত্যন্ত অঞ্চলের বিল হিসেবেই পরিচিত ছিল এতদিন, কিন্তু বিভিন্ন পত্রিকা, টিভি চ্যানেলে সংবার প্রকাশের ফলে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত পেয়েছে মাত্র কয়েকবছর আগে। ফলে স্থানীয়রা এখনো সেরকমভাবে উদ্যোগ নিতে পারেনি। তবে কেউ কেউ উদ্যোগ নিয়ে এবছর ছোটখাটো রেস্তোরা খুলেছে। তিনি আরো বলেন, ব্যক্তিগত উদ্যোগের চেয়েও শাপলার বিলের ব্যাবস্থাপনার জন্য সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা খুবই জরুরি। এব্যাপারে বরিশাল জেলা প্রশাসক মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, ইতিমধ্যেই উজিরপুরের শাপলা বিলকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে। শাপলার বিলকে পর্যটন শিল্প হিসেবে গড়ে তুলতে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

মডেলঃ সাবরিনা নিশা




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY Next Tech