মৃত্যু ও ধ্বংসের মাঝে গাজায় ঈদ

ডেস্ক রিপোর্ট :
গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি তাণ্ডব যখন বেড়েই চলেছে, তখন পবিত্র রমজান মাস শেষে এসেছে মুসলমানদের অন্যতম উৎসব ঈদুল ফিতর।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির দাবি এবং মানবিক ত্রাণ প্রবেশ করতে দেওয়া ও গণহত্যা প্রতিরোধের জন্য ইসরায়েলকে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের আদেশ সত্ত্বেও গাজা উপত্যকায় রক্তপাত চলছে। আর এর মধ্য দিয়ে ম্লান হয়ে গেছে ফিলিস্তিনিদের ঈদ উদযাপন। শোক, কান্না, হতাশা ও বিষাদে রূপ নিয়েছে গাজাবাসীর ঈদ।

গাজা উপত্যকার রাফাহতে একটি খোলা বাজারে মিষ্টি বিক্রি করছে তরুণরা। ছবি : এএফপি

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্যমতে, গাজায় ইসরায়েলের হামলায় এ পর্যন্ত প্রায় ৩৩ হাজার ৩৬০ জন নিহত এবং ৭৫ হাজার ৯৯৩ জন আহত হয়েছে। হাজার হাজার মানুষ এখনও নিখোঁজ, যারা ইসরায়েলি হামলায় বিধ্বস্ত ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে পড়ে বা অন্য কোথাও নিহত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। বাস সবকিছু মিলিয়ে গাজাবাসী সাম্প্রতিক কালের সবচেয়ে বড় মানবিক বিপর্যয়ে পড়েছেন।

ছয় মাসের যুদ্ধে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। এতসব ধ্বংসযজ্ঞ সত্ত্বেও বাড়িঘর ও প্রিয়জন হারানো বিপুল ফিলিস্তিনিদের ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। চলমান যুদ্ধের মাঝেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য গাজার কিছু অংশের বাজারে ভিড় জমান হাজার হাজার ফিলিস্তিনি।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর

ডেস্ক রিপোর্ট :
সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তানসহ বিশ্বের বেশিরভাগ মুসলিম দেশে আজ বুধবার (১০ এপ্রিল) উদযাপিত হচ্ছে মুসলমানদের সবচে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। দেশে দেশে ঈদ জামায়াত শেষে অসহায় গাজাবাসী এবং মুসলিম উম্মার মঙ্গল কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়। মুসলিম সম্প্রদায়কে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকসহ বিশ্ব নেতারা।

আজ সকাল থেকেই সৌদি আরবের পবিত্র মসজিদুল হারামে জড়ো হতে থাকেন মুসল্লিরা। অংশ নেন ঈদ জামাতে। নামাজ শেষে বিতরণ করা হয় মিষ্টি সামগ্রী। সৌদি আরব ছাড়াও আজ ঈদ উদযাপিত হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতারসহ মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশেও।

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে আজ বুধবার মুসলমানরা পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন। ছবি : এএফপি

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার ইস্তিকলাল গ্র্যান্ড মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় বিশাল ঈদ জামাত। এতে অংশ নেন বহু মানুষ। এ ছাড়াও আজ পবিত্র ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করছেন মালয়েশিয়ার মুসলমানরা। এদিন ঈদ জামাতে অংশ নিয়েছেন দেশটিতে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিরাও।

ইরাকের মসুলের আল-নবি জিরজিস মসজিদে আজ বুধবার ঈদুল ফিতরের নামাজের পরে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন মুসল্লিরা। ছবি : এএফপি

নানান আয়োজনে ঈদ উদযাপন করছেন পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ। ঈদের নামাজের পর বিশেষ মোনাজাতে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার সাধারণ মানুষের জন্য দোয়া করা হয়। দক্ষিণ এশিয়ার আরেক দেশ ভারতের বেশ কিছু অঞ্চলেও উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর। জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, তামিল নাড়ু, কেরালার ঈদ জামাতে অংশ নেন হাজারো মুসল্লি।

পাকিস্তানের পেশোয়ারে ঈদুল ফিতরের নামাজের পর বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন মুসল্লিরা। ছবি : এএফপি

নানা আয়োজনে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করছেন অস্ট্রেলিয়ার মুসলমানরা। এ ছাড়াও ইউরোপ ও আমেরিকা মহাদেশের মুসলমানরাও আজ উদযাপন করছেন তাদের সবচে বড় ধর্মীয় উৎসব।

বিশ্ববাসী ঈদের আনন্দ উদযাপন করলেও দুঃস্বপ্নের দিন কাটাচ্ছে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার মানুষ। দখলদার ইসরায়েলের অব্যাহত হামলায় ঈদের দিনটি তাদের জন্য কেবলই হাহাকারের। একমুঠো খাবারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তারা। ধ্বংসস্তূপের পাশের খোলা আকাশের নিচে ঈদের নামাজ আদায় করেন অনেকে।

ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তার একটি রাস্তায় ঈদুল ফিতরের জামাতে অংশ নেন নারীরা। ছবি : এএফপি

ভিডিও বার্তায় মুসলিম সম্প্রদায়কে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। একইসঙ্গে অব্যাহত দুর্দশার জন্য অবরুদ্ধ গাজার সাধারণ মানুষের প্রতিও সমবেদনা জানান তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে দেওয়া ঈদ বার্তায় গাজা ও সুদানের বাস্তুচ্যুত মুসলিমদের কথা উল্লেখ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এ ছাড়াও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজসহ অন্যান্য বিশ্ব নেতারা।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

যুদ্ধবিরতি নিয়ে ইসরায়েল-হামাসের আলোচনা

ডেস্ক রিপোর্ট :
মিসরের রাজধানী কায়রোয় গাজার যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা শেষে আজ মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) হামাস বলেছে, তারা যুদ্ধবিরতি ও জিম্মি মুক্তির বিনিময়ে ইসরায়েলে আটক ফিলিস্তিনি বন্দিদের ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাব পর্যালোচনা করছে। আর ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়ুভ গ্যালান্ট বলেছেন, এখনই চুক্তি করার সময়।

মঙ্গলবার ইয়ুভ গ্যালান্ট ইসরায়েলি সেনা নিয়োগকারীদের বলেন, ‘আমি মনে করি, হামাসের সঙ্গে চুক্তির জন্য আমরা একটি যথাযথ সময়ে আছি।’

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাসের মধ্যকার যুদ্ধের মেয়াদ প্রায় সাত মাস হতে চলল। যুদ্ধ বন্ধ ও চুক্তিতে সম্মত হতে ইসরায়েলের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রয়েছে। এমনকি ইসরায়েলের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্রও চাচ্ছে ইসরায়েল যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হোক এবং গাজার দক্ষিণে রাফায় কোনো অভিযান না চালাক।

যুদ্ধবিরতির আলোচনার সঙ্গে সম্পর্কিত ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র বলেছে, হামাস প্রস্তাব বিবেচনা করে দেখছে। প্রস্তাবে ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি এবং হামাসের কাছে আটক ইসরায়েলি জিম্মিদের মুক্তির বিনিময়ে ৯০০ ফিলিস্তিনি বন্দিকে ছেড়ে দেওয়ার বিষয় রয়েছে।

এদিকে, আলোচনার মধ্যেই ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফা শহরে সৈন্য পাঠানোর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এরপরই এ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলেছে, এ অভিযান ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিক এবং শেষ পর্যন্ত ইসরায়েলের নিরাপত্তার ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে।

এ ছাড়া ফ্রান্স, মিসর ও জর্ডান এ অভিযান নিয়ে ইসরায়েলকে সতর্ক করে বলেছে, এর পরিণাম হবে ভয়াবহ। একইসঙ্গে এই তিন দেশের নেতা গাজায় ত্রাণ সরবরাহ ব্যাপকভাবে বাড়ানোরও আহ্বান জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে আকস্মিক বড়ো ধরনের হামলা চালায়। এ সময়ে তারা প্রায় এক হাজার ১৭০ ইসরায়েলিকে হত্যা এবং ২৫০ জনকে জিম্মি করে। এখনও তাদের হাতে ১৫০ জিম্মি আটক রয়েছে। ৭ অক্টোবর ইসরায়েল গাজায় প্রতিশোধমূলক পাল্টা হামলা শুরু করে, যা এখনও চলছে। গাজায় ইসরায়েলের অব্যাহত হামলায় ৩৩ হাজার ২০৭ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এদের অধিকাংশ নারী ও শিশু।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

সৌদি আরবে ঈদ বুধবার

ডেস্ক রিপোর্ট :
সৌদি আরবের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে আগামীকাল মঙ্গলবার ৩০ রমজান পূর্ণ হবে সেখানে। তাই দেশটিতে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে বুধবার।

আজ সোমবার ইনসাইড দ্য হারামাইনের ফেসবুক পেজে এই তথ্য জানানো হয়।

আগেই সৌদি আরবের চাঁদ দেখার দায়িত্বে থাকা প্রধান জ্যোতির্বিদ আব্দুল্লাহ আল খুদাইরি জানিয়েছিলেন, আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকায় চাঁদ দেখা খুব কঠিন হয়ে যাবে।

সৌদি আরবে বেসরকারি চাকরিজীবীদের জন্য ৯ এপ্রিল থেকে ঈদের  ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে তারা ঈদের ছুটি পাবেন ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত। মোট পাঁচ দিন।

আর দেশটির সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ছুটি পেয়েছেন ৭ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত।

গাজার গণহত্যায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহারের অভিযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট :
জাতিসংঘের মানবাধিকার ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ বেন সাউল বলেছেন, হামাসের একজন সক্রিয় জুনিয়র সদস্যের জন্য ১৫ থেকে ২০ জন ফিলিস্তিনিকে হত্যার সিদ্ধান্তের বিষয়টি ইসরায়েলের জন্য যুদ্ধাপরাধ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। সামজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে এ কথা বলেন তিনি।

সাউল বলেন, ‘যদি সেটি সত্যি হয় তবে অনানুপাতিক হামলা পরিচালনা করায় গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের অনেক আক্রমণ যুদ্ধাপরাধ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।’ খবর আলজাজিরার।

প্লাস নাইন সেভেনটি টু ম্যাগাজিন ও হিব্রু ভাষার গণমাধ্যম ‘লোকাল কলে’ দেওয়া এক প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন সাউল। গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে উঠে আসে, ইসরায়েলি সেনাবাহিনী গাজায় ১০ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনিকে শনাক্ত করতে ‘ল্যাভেন্ডার’ নামে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহার করেছে।

হামাদ বিন খলিফা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মার্ক ওয়েন জোন্স বলেন, এটা ক্রমেই পরিষ্কার হচ্ছে, গাজা যুদ্ধে ইসরায়েল অপরীক্ষিত কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ক্রমবর্ধমান হারে ব্যবহার করে আসছে। তিনি বলেন, ‘এই গণহত্যা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির সহায়তায় হচ্ছে এবং তা বেড়েই চলেছে। যুদ্ধে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে জোরালো ভূমিকা পালনের প্রকৃত সময় এখনই।

এদিকে ইসরায়েলি সেনাপ্রধান বলেছেন, পণবন্দি বিষয়ক আলোচনায় তার দেশ অবস্থার পরিবর্তন চায়। তবে হামাসের শীর্ষ নেতা ইসমাইল হানিয়েহ বলেছেন, ইসরায়েল ক্রমাগতভাবে তাদের অনুরোধকে এড়িয়ে যাচ্ছে। এসব অনুরোধের মধ্যে রয়েছে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব, গাজাবাসীর জন্য খাদ্যের ব্যবস্থা করা এবং তাদের বাড়ি ফিরতে সাহায্য করা।

অন্যদিকে জাতিসংঘের মানবিক সাহায্য বিষয়ক সমন্বয় অফিস জানিয়েছে, তারা পূর্ব জেরুজালেমসহ অধিকৃত পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর ৭০৪টি আক্রমণের ঘটনা লিপিবদ্ধ করেছে। এসব আক্রমণ ও হামলার মধ্যে ৭০০টিরও বেশি ঘটনায় হতাহতের নজির রয়েছে। এসব ঘটনায় ১৭ জন ফিলিস্তিনি মারা গেছে, ৪০০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে, ৯ হাজার ৯০০ গাছ ধ্বংস করা হয়েছে এবং ভাঙচুর চালানো হয়েছে ৪০টি বাড়ি।

অন্যদিকে, গাজায় যুদ্ধের অবসান ঘটাতে শান্তি আলোচনায় খুবই কম অগ্রগতি হয়েছে। কাতারের কর্মকর্তারা বলেন, বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘরে ফিরে যেতে ইসরায়েলের বিরোধিতা আলোচনায় মূল বিষয় হিসেবে আটকে আছে। হামাস বলেছে, গাজা থেকে ইসরায়েলি সৈন্য প্রত্যাহার না হলে তারা তাদের হাতে থাকা পণবন্দিদের মুক্তি দেবে না।

যুদ্ধ বিধ্বস্ত গাজা উপত্যকায় থেমে নেই ইসরায়েলি আগ্রাসন। সর্বশেষ গাজার মধ্যাঞ্চলে মাগহাজি শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় দুই ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে আরও ১৫ জন।

গত বছরের ৭ অক্টোবরের পর থেকে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় এ পর্যন্ত ৩২ হাজার ৯৭৫ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে আরও ৭৫ হাজার ৫৭৭ জন। অন্যদিকে ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে ফিলিস্তিনি সশস্ত্র সংগঠন হামাসের হামলায় নিহত হয়েছিল এক হাজার ১৩৯ জন। এ ছাড়া হামাস আরও বেশ কিছু ইসরায়েলি নাগরিককে জিম্মি করে নিয়ে আসে গাজায়।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

তাইওয়ানে ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৯, আহত হাজারের বেশি

ডেস্ক রিপোর্ট :
তাইওয়ানে গতকাল বুধবারের (৩ মার্চ) শক্তিশালী ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯ জনে দাঁড়িয়েছে এবং আহত হয়েছে এক হাজারেরও বেশি মানুষ। গত দুই যুগের মধ্যে অন্যতম ভয়াবহ এই ভূমিকম্পে বহু বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। পাশাপাশি ভূকম্পনের পরপরই জারি করা হয়েছিল সুনামি সতর্কতা। ভূমিকম্পের কারণে ভূমিধসের ঘটনায় আটকা পড়েছেন অনেকে। দ্বীপরাষ্ট্রটির উত্তর-দক্ষিণের সংযোগকারী টানেলেও আটকা পড়েছেন বহু লোক। কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গত ২৫ বছরের মধ্যে এটাই ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্পের ঘটনা। পাশাপাশি তারা সামনের দিনগুলোতে আরও ভূমিকম্পের ঘটনার বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছেন।

তাইপের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া প্রশাসনের ভূকম্পন কেন্দ্রের পরিচালক উ চিয়েন ফু বলেন, ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বরে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পের পর এটাই ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী। সে সময় দ্বীপদেশটির ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে দুই হাজার ৪০০ লোক নিহত হয়।

গতকাল বুধবারের ৭ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পটি আঘাত হানে স্থানীয় সময় সকাল ৮টায়। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদপ্তর জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল তাইওয়ানের হাউলিয়েন শহর থেকে ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণে ৩৪ দশমিক ৮০ কিলোমিটার গভীরতায়।

ভূমিকম্পের পরপরই তাইওয়ান, জাপান ও ফিলিপাইনে জারি করা হয় সুনামি সতর্কতা। তবে কয়েক ঘণ্টা পর তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেতে মেট্রোরেল চলাচল এক ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। শহরের অধিবাসীদের প্রতি গ্যাস লিকের বিষয়ে অনুসন্ধান করতে অনুরোধ জানানো হয়।

চীনের ফুজিয়ান প্রদেশেও অনুভূত এই ভূমিকম্প। তাছাড়া হংকংয়ের অধিবাসীরাও জানিয়েছে, তারা ভূমিকম্প অনূভব করেছেন।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

৬ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল জাপান

ডেস্ক রিপোর্ট :
জাপানের উত্তর-পূর্বাঞ্চল ফুকুশিমায় আজ বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) ৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ। তবে ভূমিকম্পের কারণে কোনো সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি। রাজধানী টোকিও থেকেও এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। তবে এতে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। খবর এএফপির।

ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের পরিচালনাকারী সংস্থা টেপকো জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে সেখানে কোনো অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

ভূমিকম্পপ্রবণ দেশ জাপানে কঠিন নিয়ম মেনে বাড়িঘরের নকশা করা হয়, যাতে অতিশক্তিশালী ভূমিকম্পেও সেগুলো টিকে থাকে। সাড়ে ১২ কোটি অধিবাসী অধ্যুষিত দ্বীপপুঞ্জের দেশটিতে প্রতিবছর দেড় হাজারেরও বেশি ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে এগুলোর বেশির ভাগেরই মাত্রা থাকে মৃদু পর্যায়ের।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, জাপানে আজকের ভুমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ১। এর গভীরতা ছিল ৪০ দশমিক ১০ কিলোমিটার ভূ-অভ্যন্তরে।

গতকাল বুধবার তাইওয়ানে ৭ দশমিক ৪ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে নয়জনের মৃত্যু ও এক হাজারেরও বেশি মানুষ আহত হওয়ার ঠিক পরদিন জাপানে এই ভূকম্পন অনুভূত হলো।

২০১১ সালে জাপানের ফুকুশিমায় ভূমিকম্পের ফলে সেখানকার পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের তিনটি রিঅ্যাক্টর গলতে শুরু করে। এটিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী জাপানে সবচেয়ে খারাপ বিপর্যয় হিসেবে দেখা হয় এবং বলা হয় তা চেরনোবিলের পর সবচেয়ে মারাত্মক পারমাণবিক দুর্ঘটনা।

তাইওয়ানে ২৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

ডেস্ক রিপোর্ট :
গত ২৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে তাইওয়ানে। বুধবার সকালে স্থানীয় সময় ৭টা ৫৮ মিনিটে এ ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৪
। এতে অন্তত ৪ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। ভূমিকম্পের পর তিন দেশ- তাইওয়ান, ফিলিপাইন ও জাপানে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএসের তথ্যমতে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল তাইওয়ানের হুয়ালিয়েন শহরের ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণে। ভূপৃষ্ঠের ৩৪ দশমিক ৮ কিলোমিটার গভীরে এর উৎপত্তি হয়েছে। ভূমিকম্পের পরপরই সুনামি সতর্কতা জারি করেছে তাইওয়ান কর্তৃপক্ষ। ভূমিকম্পে তাইওয়ানের একাধিক শহরের বেশকিছু ভবন ধসে পড়েছে। এসব ভবনের নিচেও চাপা পড়েছেন অনেকে। এছাড়া এই পাহাড়ি শহরটিতে ভূমিধ্বসের খবরও জানা গেছে।

এক জরুরি বার্তায় তারা জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে সুনামি আঘাত হানতে পারে। তাইওয়ানে এর প্রভাব পড়তে পারে। উপকূলীয় এলাকার লোকজনকে সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। ২৫ বছর আগে ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বরে তাইওয়ানে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত আনে। তাতে ২ হাজার ৪০০ মানুষের মৃত্যু হয়।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

গাজায় যুদ্ধবিরতি ‍নিয়ে আলোচনা আবারও শুরু আজ

ডেস্ক রিপোর্ট :
গাজায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি নিয়ে মিসরের রাজধানী কায়রোতে আবারও আলোচনা শুরু হচ্ছে আজ রোববার (৩১ মার্চ)। মিসরের গণমাধ্যমগুলো এই সংবাদ দিয়েছে। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ থেকে গাজা যুদ্ধের অবসানে প্রথমবারের মতো নেওয়া উদ্যোগের পর নতুন করে এই আলোচনা শুরু হচ্ছে। খবর আলজাজিরার।

এদিকে যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা শুরুর প্রাক্কালে ইসরায়েলের রাজধানী তেল আবিবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছে হাজারো ইসরায়েলি নাগরিক। অনেক ইসরায়েলি নেতানিয়াহুকে হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে যুদ্ধবিরতির চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়ে প্রধান বাধা বলে মনে করেন। বিক্ষোভকারীরা অবিলম্বে হামাসের হাতে আটক ইসরায়েলি পণবন্দিদের নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান। বিক্ষোভে পণবন্দিদের নিকট আত্মীয়রাও উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে কাতার, মিসর ও যুক্তরাষ্ট্র গাজায় যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে এবং পণবন্দিদের মুক্তির বিষয়ে একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে কাজ করে যাচ্ছে। জানা গেছে, আলোচনায় যোগ দিতে ইসরায়েল একটি প্রতিনিধি দল কায়রোতে পাঠাচ্ছে। অন্যদিকে হামাস কর্মকর্তারা  বলেন, দলটি কায়রোর মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে প্রথমে বৈঠকে বসবে।

আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর অফিস কায়রো ও দোহায় মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে ওই দলটিকে অনুমোদন দিয়েছে।

মধ্যস্থতাকারী দেশ, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র খুবই আশাবাদী, এবারের আলোচনায় একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর ব্যাপারে।

হামাস চুক্তির অংশ হিসেবে যুদ্ধের সমাপ্তি ও গাজা থেকে ইসরায়েলি বাহিনীর পুরোপুরি প্রত্যাহার চায়। তবে ইসরায়েল এই দাবি পূরণে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেছে, হামাসকে নির্মূল না করা পর্যন্ত তাদের লড়াই থামবে না।

জিম্মি নাবিকদের জন্য দুম্বা নেওয়ার কথা নিশ্চিত না মালিক পক্ষ

ডেস্ক রিপোর্ট :
সোমালি জলদস্যুদের হাতে জিম্মি ২৩ নাবিকসহ বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ। নাবিকদের খাদ্য ও অন্যান্য নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছে তাদের পরিবারের সদস্যরা। যদিও গতকাল বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, এর আগে তিন মাস ধরে জলদস্যুদের কবলে থাকা অন্য জাহাজেও খাদ্য সংকট ছিল না, এখানেও নেই।

এর পরের দিন আজ গণমাধ্যমে জলদস্যুরা এমভি আবদুল্লাহর নাবিকদের জন্য দুম্বা আনছে বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। যদিও জিম্মি জাহাজ আব্দুল্লার মালিকানা প্রতিষ্ঠান কবির গ্রুপ সেই তথ্য নিশ্চিত করতে পারেনি। এই গ্রুপের মিডিয়া অ্যাডভাইজার মিজানুল ইসলাম এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘ঈদের আগেই আমরা জিম্মি নাবিক ও জাহাজ ফিরিয়ে আনার জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। নাবিকদের জন্য জলদস্যুরা দুম্বা এনে খাওয়ানোর বিষয়ে আমরা অবগত নই। এই রকম কোনো তথ্য আমরা পাইনি।’

গত ১২ মার্চ এমভি আবদুল্লাহকে ২৩ জন বাংলাদেশি নাবিকসহ জিম্মি করে সোমালি জলদস্যুরা। এরপর থেকে জিম্মি নাবিকদের ফেরাতে সব ধরনের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। গতকালও তিনি একই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। বলেন, সোমালি জলদস্যুদের কবল থেকে বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহর নাবিকদের নিরাপদে উদ্ধার ও জাহজকে মুক্ত করাই আমাদের মূল উদ্দেশ।

ড. হাছান বলেন, ‘জাহাজ সম্পর্কে শুধু এটুকু বলতে চাই, নাবিকদের মুক্ত করার জন্য আমরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগে আছি। আমরা নানামুখী তৎপরতা চালাচ্ছি এবং আমাদের উদ্দেশ হচ্ছে নাবিকদের নিরাপদে উদ্ধার করা এবং জাহাজ উদ্ধার করা। আমরা অনেক দূর এগিয়েছি।’

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়