ঈদের দিন বৃষ্টি হবে কিনা, জানাল আবহাওয়া অধিদপ্তর

ডেস্ক রিপোর্ট :
পবিত্র ঈদুল আজহার দিন রাজধানীতে বৃষ্টি হবে কিনা তা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষণ বলছে, আগামী তিন-চার দিন, অর্থাৎ ঈদের দিন থেকে শুরু করে তার পরের দুই দিনও একই ধরনের ভ্যাপসা গরম অনুভূত হতে পারে। তবে সামনের কয়েক দিন বৃষ্টি আরও বাড়তে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঈদের দিন বৃষ্টি হতে পারে। তবে তাতে ভ্যাপসা গরম কমার তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। অপরদিকে, চট্টগ্রাম, সিলেট, ময়মনসিংহ ও রংপুরে ওই দিন সকাল থেকে শুরু হয়ে দিনভর বৃষ্টি হতে পারে। আর খুলনাসহ আশপাশের জেলাগুলোতে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, আগামী ২৪ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও আশপাশের উজানে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। এর ফলে আগামী ৭২ ঘণ্টায় উত্তরাঞ্চলের তিস্তা, ধরলা ও দুধকুমার নদ-নদীসহ উত্তরাঞ্চলের বেশ কয়েকটি নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়তে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তর আজ শনিবার (১৫ জুন) সকাল ৯টায় পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার পূর্বাভাসে জানিয়েছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; ঢাকা, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে
খুলনা বিভাগসহ গোপালগঞ্জ জেলার উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে। দ্বিতীয় দিন (রোববার) পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে।
তৃতীয় দিনের পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে। আগামী পাঁচ দিন বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক আজিজুর রহমান জানান, মৌসুমি বায়ু বেশ শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। বাতাসে আর্দ্রতা ব্যাপক বেড়ে গেছে। এতে বৃষ্টির সম্ভাবনা ও ভ্যাপসা গরম—দুটোই বাড়তে পারে। রোববার থেকে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত একই রকম আবহাওয়া থাকতে পারে। তারপর বৃষ্টি বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

সেচ পাম্পকে পুরোপুরি সৌরবিদ্যুতের আওতায় আনতে চাই : প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার দেশের সেচ ব্যবস্থাকে পুরোপুরি সৌরবিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসতে চায়। আজ শনিবার (১৫ জুন) প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কৃষক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সেচ ব্যবস্থাকে পুরোপুরি সৌরবিদ্যুতের ওপর নির্ভরশীল করতে চাই। প্রাথমিকভাবে এক্ষেত্রে কিছু বিনিয়োগের প্রয়োজন হতে পারে, তবে দীর্ঘমেয়াদে খরচ কমাবে।’

‘সরকার বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দিচ্ছে’ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একটি চমৎকার পদ্ধতি উদ্ভাবিত হয়েছে। সোলার প্যানেল দিয়ে সজ্জিত একটি ছাতা একটি কূপের ওপরে স্থাপন করা হবে, যেখানে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করা হবে। সৌরশক্তি দিয়ে সেচ করা হবে।’ তিনি উল্লেখ করেন, এ ব্যবস্থা প্রবর্তনের জন্য বিপুল পরিমাণ জমি নষ্ট করা হবে না। তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে সোলার প্যানেল তৈরি করা হচ্ছে এবং আমরা সেচ করার জন্য নিকটবর্তী গ্রামে সোলার প্যানেল স্থাপন করতে পারি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি গড়ে তোলার মাধ্যমে দেশকে শিল্পায়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তিনি বাংলাদেশকে সবুজ করতে তার দলের নেতাকর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান। একইসঙ্গে সবুজ আন্দোলনকে জোরদার করতে নদীর বাঁধ, উপকূলীয় অঞ্চল, রাস্তার ধারে, ছাদে, বাড়িতে চারা রোপণের আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠান উপলক্ষে গণভবনে তিনটি গাছের চারা রোপণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীমা শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন কৃষক লীগের সভাপতি সমীর চন্দ ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ সরকার।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

সৌদিতে আরও দুই বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

ডেস্ক রিপোর্ট :
সৌদি আরবে হজ পালন করেতে গিয়ে আরও দুই বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চলতি বছর এখন পর্যন্ত ১৭ জন হজযাত্রী মারা গেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নিয়মিত বুলেটিনে জানানো হয়, গতকাল বুধবার (১২ জুন) মারা যান মো. শাহ আলম (৭৭) ও সুফিয়া খাতুন (৬২) নামে দুই বাংলাদেশি। তাদের বাড়ি কুমিল্লা ও কিশোরগঞ্জ জেলায়। মারা যাওয়া হজযাত্রীদের মধ্যে ১৫ জন পুরুষ ও দুইজন নারী।

গত ১০ জুন গোলাম কুদ্দুস (৫৪) ও শাহাজুদ আলী (৫৫) নামে আরও দুজন হজযাত্রী মারা যান। এর মধ্যে গোলাম কুদ্দুসের বাড়ি রংপুরের তারাগঞ্জে, শাহাজুদ আলীর বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জে।

মারা যাওয়া অপর হজযাত্রীরা হলেন—নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার মো. আসাদুজ্জামান (৫৭), ভোলা জেলার মো. মোস্তফা (৯০), কুড়িগ্রাম জেলার মো. লুৎফর রহমান (৬৫), ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জের মো. মুরতাজুর রহমান (৬৩), চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার মোহাম্মদ ইদ্রিস (৬৪), ঢাকা জেলার কদমতলির মোহাম্মদ শাহজাহান (৪৮), কুমিল্লা জেলার মো. আলী ইমাম ভুঁইয়া (৬৫), কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার মো. জামাল উদ্দিন (৬৯), কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার মোহাম্মদ নুরুল আলম (৬১), কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার মাকসুদ আহমদ (৬১), ফরিদপুর জেলার নগরকান্দার মমতাজ বেগম (৬৩), ঢাকার রামপুরার বাসিন্দা আরিফুল ইসলাম (৫৭) ও গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার মো. সোলাইমান (৭৩)।

সৌদি আরবের আইন অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি হজ করতে গিয়ে মারা গেলে তার মরদেহ সেখানেই দাফন করা হয়। মক্কায় হজযাত্রী মারা গেলে মসজিদুল হারামে জানাজা হয়। আর মদিনায় মারা গেলে জানাজা হয় মসজিদে নববিতে।

গতকাল বুধবার শেষ হয়েছে চলতি বছরের হজ ফ্লাইট। এ বছর বাংলাদেশ থেকে তিনটি এয়ারলাইনসের ১২৭টি ফ্লাইটে মোট ৮৫ হাজার ১২৯ জন হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ১০৫টি, সৌদি এয়ারলাইনসের ৭৫টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইনস ৩৭টি ফ্লাইট পরিচালনা করেছে।

বরিশাল অবজারভার  / হৃদয়

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক সহ ১৫ জন পলাতক : সংসদে প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট :
প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার ১৫ সাজাপ্রাপ্ত আসামী পলাতক রয়েছে। তিনি বলেন,  “৪৯ জনের মধ্যে ৩৪ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তারেক রহমান ওরফে তারেক জিয়াসহ ১৫ জন পলাতক রয়েছে।” পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে. বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তিনি আজ জাতীয় সংসদে তাঁর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সংসদ সদস্য ফরিদা ইয়াসমিনের (মহিলা আসন-৩৫) এক প্রশ্নের জবাবে  এ কথা বলেন।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর পর্বটি টেবিলে উত্থাপিত হয়।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান ওরফে তারেক জিয়াসহ সাজাপ্রাপ্ত ১৫ জন আসামী বর্তমানে পলাতক রয়েছে। বিদেশে পলাতক আসামী মাওলানা তাজউদ্দীন, হারিছ চৌধুরী ও রাতুল আহম্মেদ বাবু ওরফে রাতুল বাবুদের বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের রেড নোটিশ জারী করা আছে। পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় ৫২ জনকে আসামী করে দুটো অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, রায় ঘোষণার আগে অভিযোগপত্রভুক্ত ৫২ জন আসামীর মধ্যে ৩ জন আসামীর অন্য মামলায় ফাঁসি কার্যকর হয়। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গত ২০১৮ সালের ১০ অক্টোবর রায় ঘোষণা করেন। বিচারে ৪৯ জন আসামীর সাজা হয়, যার মধ্যে ১৯ জনের মৃত্যুদন্ড, ১৯ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ১১ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড হয়। সাজাপ্রাপ্ত ৪৯ জন আসামীর মধ্যে ৩৪ জন আসামীকে আটক করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, হারিছ চৌধুরী বাংলাদেশে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় ২০২১ সালে মারা গেছেন বলে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। যা তার পরিবার স্বীকারও করেছে।

লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সরকার দলীয় এমপি আনোয়ার হোসেন খানের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের অধিক বজ্রপাত প্রবণ ১৫টি জেলায় বজ্রপাতের ফলে সৃষ্ট প্রাণহানি রোধে বজ্রনিরোধক ব্যবস্থা গ্রহণ প্রকল্প বাস্তবায়নের কার্যক্রম চলমান আছে। প্রস্তাবিত প্রকল্পের আওতায় ৬ হাজার ৭৯৩টি বজ্রনিরোধক দন্ড/ছাউনি স্থাপন প্রকল্প প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরে মানবতা বিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য প্রতিষ্ঠিত অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ৫৬টি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে এবং ১৫৩ জন আসামীর মৃত্যুদন্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা হয়েছে।
স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ নাহিদ নিগারের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার বিচারপ্রার্থী জনগণের ভোগান্তি লাঘবে সঠিক বিচারের নিশ্চয়তা প্রদান করে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ধনী, গরীব নির্বিশেষে সকলের জন্য সমতার ভিত্তিতে সুবিচার নিশ্চিত করা এবং বিচার ব্যবস্থায় দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধন করে সমাজে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকার বদ্ধ পরিকর।
ফেনী-১ আসনের সরকার দলীয় এমপি আলাউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি হতে চলতি বছরের মে পর্যন্ত ৪ হাজার ৭১১ টি (স্থানীয় ৪ হাজার ১৩০ এবং বৈদেশিক ৫৮১ টি) শিল্প প্রকল্পের নিবন্ধন দিয়েছে, যাতে প্রস্তাবিত বিনিয়োগের পরিমাণ ২৮ লক্ষ ৩০ হাজার ৫৩৭ দশমিক ৮৫ মিলিয়ন টাকা। এতে ৫ লক্ষ ৩৭ হাজার ৩৫৬ জনের কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। নিবন্ধনকৃত প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে ২০২২ সালের জানুয়ারি হতে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ৪৩ দেশ হতে ২৩ হাজার ৩৬৩ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাব পাওয়া গেছে। অন্যদিকে ২০২২ সালের জানুয়ারি হতে গত ডিসেম্বর পর্যন্ত সরাসরি বিনিয়োগ হিসেবে ৬ হাজার ৪৮৪ দশমিক ৩৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার পাওয়া গেছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।
ঢাকা-১৪ আসনে সরকার দলীয় এমপি মাইনুল হোসেন খান নিখিলের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ভূমিকম্প ও অন্যান্য দুর্যোগ মেগা ডিজাস্টার মোকাবিলার লক্ষ্যে চীনের সহযোগিতায় ঢাকার তেজগাঁও এলাকায় এক একর জমির উপর একটি অত্যাধুনিক ন্যাশনাল ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ৮ রিক্টার স্কেলের অধিক ভূমিকম্প সহনীয় এই ভবনের জন্য প্রকল্প প্রণয়নের মাধ্যমে বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে।
সরকার দলীয় অপর সংসদ সদস্য চয়ন ইসলামের প্রশ্নের জবাবে সংসদ নেতা বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পরে নারী বান্ধব বিভিন্ন নীতি-কার্যক্রম বাস্তবায়নের ফলে নারী শিক্ষার্থীদের সুবিধা প্রভূত বেড়েছে। এতে নারী শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া হ্রাস পেয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নারী শিক্ষার্থী ও নারী শিক্ষকের সংখ্যা বেড়েছে এবং একই সঙ্গে প্রশিক্ষিত নারী শিক্ষকের সংখ্যাও বেড়েছে।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

সৌদি আরবে পৌঁছেছেন ১৫ লাখের বেশি হজযাত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট :
চলতি বছর এ পর্যন্ত ১৫ লাখের বেশি হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। গত মঙ্গলবার (১১ জুন) সৌদির পাসপোর্ট অধিদপ্তর এ তথ্য জানায়। খবর আল অ্যারাবিয়ার।

অধিদপ্তরের তথ্যমতে, সোমবার (১০ জুন) পর্যন্ত আকাশ, স্থল ও সমুদ্র বন্দর দিয়ে সৌদি আরবে আসা হজযাত্রীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৪৭ হাজার ২৯৫ জনে পৌঁছেছে।

এ বছর ১৪ লাখ ৮৩ হাজার ৩১২ জন হজযাত্রী বিভিন্ন ফ্লাইটে, ৫৯ হাজার ২৭৩ জন হজযাত্রী স্থলবন্দর দিয়ে এবং ৪ হাজার ৭১০ জন হজযাত্রী সমুদ্রবন্দর দিয়ে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

সৌদি পাসপোর্ট অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হজযাত্রীদের প্রবেশ প্রক্রিয়া সহজতর করার জন্য সর্বশেষ প্রযুক্তিগত সহায়তাসহ সব ধরনের ক্ষমতা ব্যবহার করা হচ্ছে।

গত বছর হজ করতে ১৫০টিরও বেশি দেশ থেকে ১৮ লাখের বেশি মানুষ সৌদি আরবে জড়ো হন। এবার তা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

হজ ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের একটি। সক্ষম যেকোনো মুসলমানের ওপর অন্তত একবার হলেও হজ করা ফরজ। এ বছরের হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আগামীকাল শুক্রবার (১৪ জুন)।

সৌদি কর্তৃপক্ষ বলেছে, এবারের হজ মৌসুমে উচ্চ তাপমাত্রা একটি বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিতে পারে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় হজযাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কিছু নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

জম্মু ও কাশ্মীরে ৭২ ঘণ্টায় তিন হামলা, নিহত ১২

ডেস্ক রিপোর্ট :
শুরুটা হয়েছিল রিয়াসিতে তীর্থযাত্রী বোঝাই বাসে সন্ত্রাসী হামলার মধ্য দিয়ে। তারপর কাথুয়া ও ডোডায় সন্ত্রাসী হামলা হয়। রিয়াসির ঘটনায় সন্ত্রাসবাদীরা বাসে গুলি চালায়। বাস খাদে পড়ে যায়। ৯ জন তীর্থযাত্রী মারা যান কাথুয়ায়। এ ছাড়া একজন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান ও দুজন সন্ত্রাসবাদীও মারা গেছে। ডোডায় পাঁচজন সেনা ও একজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

কাথুয়ায় গতকাল মঙ্গলবার (১১ জুন) রাতে সন্ত্রাসবাদীরা একটি গ্রামে গুলি চালায়। তারপর শুরু হয় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সন্ত্রাসবাদীদের গুলির লড়াই।

পুলিশ জানায়, একজন সন্ত্রাসবাদী রাতেই মারা যায়। দ্বিতীয় জঙ্গির সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই চলতে থাকে। সেই জঙ্গি আজ বুধবার (১২ জুন) সকালে মারা যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ বলেছে, সন্ত্রাসবাদীরা ওই গ্রামে কয়েকটি বাড়িতে গিয়ে জল চায়। সেটা দেখে কিছু গ্রামবাসীর সন্দেহ হয়। তারা পুলিশকে খবর দেয়। তখনই সন্ত্রাসীরা গুলি চালায়।

পুলিশের অতিরিক্ত ডিজি আনন্দ জৈন বলেন, তিনজন গ্রামবাসী মারা গেছেন বলে খবর পাওয়া গেছিল। তবে সেটা নিছকই রটনা। একজন গ্রামবাসী আহত হয়েছেন।

ডোডায় ছাতারগালা এলাকায় সেনা ছাউনিতে পুলিশ ও রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের একটি দলের ওপর সন্ত্রাসবাদীরা গুলি চালায়। তারপরই সন্ত্রাসবাদী ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে গুলিবিনিময় চলতে থাকে। সন্ত্রাসবাদীরা পাহাড়ের ওপরের দিকে থাকায় বাড়তি সুবিধা পেয়েছে। গুলিবিনিময় এখনও চলছে।

জম্মু ও কাশ্মীরে নির্বাচন মোটামুটি নির্বিঘ্নে হয়েছে। ফলাফল বেরনোর পর থেকে জঙ্গিদের পরপর তিনটি জায়গায় হামলার ঘটনা প্রশাসনকে উদ্বেগে রেখেছে।

পাকিস্তানভিত্তিক জৈশ-ই-মহম্মদের সঙ্গে যুক্ত স্থানীয় জঙ্গি সংগঠন কাশ্মীর টাইগার্স ডোডার আক্রমণের দায় স্বীকার করেছে।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

তৃতীয় দফায় বেনজীরের ৮ ফ্ল্যাট, ৯১ একর জমি ক্রোকের নির্দেশ

ডেস্ক রিপোর্ট :
পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদের পরিবারের সদস্যদের নামে আরও সম্পত্তি ও ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন।

জব্দ হওয়া সম্পদ ও ফ্ল্যাটের মধ্যে- রূপগঞ্জে ২৪ কাঠা জমি, উত্তরায় ৩ কাঠা, বাড্ডায় ৩৯ দশমিক ৩০ জমির ওপর দুটি ফ্ল্যাট, বান্দরবান জেলায় ২৫ একর জমি, স্ত্রী জিসানের নামে আদাবর থানার পিসিকালচার এলাকায় ৬টি ফ্ল্যাট, গুলশানে বাবার কাছ থেকে পাওয়ার অব অ্যাটর্নি মূলে সম্পত্তিতে ৬ তলা ভবন, সিটিজেন টিভির শেয়ার ও টাইগার এপারেলসের শেয়ার রয়েছে।

মামলার অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হাফিজুল ইসলাম এ আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে নিজ নামে, স্ত্রী জীশান মীর্জা ও কন্যাদের নামে দেশ-বিদেশে শত শত কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বর্হিভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ করা হয়েছে।

অনুসন্ধানকালে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যাচ্ছে, অভিযোগ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা তাদের মালিকানাধীন ও তাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের নামীয় স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তরের চেষ্টা করছেন। যা করতে পারলে মামলার অনুসন্ধানের ধারাবাহিকতায় মামলা দায়ের, চার্জশিট দাখিল, আদালত কর্তৃক বিচার শেষে সাজা অংশ হিসেবে অপরাধলব্ধ আয় থেকে অর্জিত সম্পত্তি সরকারের অনুকূলে বাজেয়াপ্তকরণসহ সকল উদ্দেশ্যই ব্যর্থ হবে।

তাই অনুসন্ধান শেষে মামলা দায়ের, তদন্ত শেষে চার্জশিট দাখিল, এরপর আদালত কর্তৃক বিচার শেষে সরকারের অনুকূলে বাজেয়াপ্তের সুবিধার্থে তথা সুষ্ঠু অনুসন্ধান ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার স্বার্থে স্থাবর সম্পত্তিসমূহ ক্রোক ও অস্থাবর সম্পত্তি ফ্রিজ করা একান্ত প্রয়োজন। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর।

এর আগে গত ২৩ ও ২৬ মে দুই দফায় বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যদের ৬২১ বিঘা জমি জব্দের আদেশ দেন আদালত। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জমির মালিক বেনজীরের স্ত্রী জীশান মীর্জা। তার নামে প্রায় ৫২১ বিঘা জমি খুঁজে পেয়েছে দুদক। বাকি ১০০ বিঘার মতো জমি রয়েছে বেনজীর, তার তিন মেয়ে ফারহিন রিশতা বিনতে বেনজীর, তাহসিন রাইশা বিনতে বেনজীর ও জারা জেরিন বিনতে বেনজীর এবং স্বজন আবু সাঈদ মো. খালেদের নামে।

বেনজীর আহমেদের স্ত্রী জীশান মীর্জার নামে মাদারীপুরের সাতপাড় ডুমুরিয়া মৌজায় ২৭৬ বিঘা জমি পাওয়া গেছে। ২০২১ ও ২০২২ সালের বিভিন্ন সময় ১১৩টি দলিলে এসব জমি কেনা হয়। দলিলমূল্য দেখানো হয় মোট ১০ কোটি ২২ লাখ টাকা। ৮৩টি দলিলে ৩৪৫ বিঘা জমি জব্দের আদেশ দেন আদালত। যার দলিলমূল্য দেখানো হয়েছিল ১৬ কোটি ১৫ টাকার কিছু বেশি।

এছাড়া বেনজীর আহমেদের পরিবারের সদস্যদের নামে গুলশানে যে চারটি ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ দেন আদালত। তার মধ্যে তিনটি তার স্ত্রীর নামে এবং একটি ছোট মেয়ের নামে। দুটি ফ্ল্যাটের আয়তন ২ হাজার ৩৫৩ বর্গফুট, দাম ৫৬ লাখ টাকা করে। বাকি দুই ফ্ল্যাটের আয়তন ২ হাজার ২৪৩ বর্গফুট করে, দাম সাড়ে ৫৩ লাখ টাকা করে। চারটি ফ্ল্যাট কেনা হয়েছে একই দিন একই ভবনে। ভবনটির নাম র‍্যানকন আইকন টাওয়ার।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের মামলায় অভিযোগ গঠন

ডেস্ক রিপোর্ট :
নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে গ্রামীণ টেলিকমের শ্রমিক-কর্মচারীদের সংরক্ষিত তহবিলের লভ্যাংশের ২৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে করা মামলায় অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। আজ বুধবার (১২ জুন) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক সৈয়দ আরাফাত হোসেন এ আদেশ দেন। এর মধ্য দিয়ে অলোচিত মামলাটির বিচারকাজ শুরু হলো।

মামলা সংক্রান্ত নথি থেকে জানা গেছে, ২০২৩ সালের ৩০ মে গ্রামীণ টেলিকমের শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের ২৫ কোটি ২২ লাখ ৬ হাজার ৭৮০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সংস্থাটির উপপরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান বাদী হয়ে মামলাটি করেন। ২০২৪ সালের ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক গুলশান আনোয়ার। দুদকের মামলায় আসামি ছিলেন ১৩ জন। অভিযোগপত্রে নতুন করে একজনের নাম যুক্ত করা হয়।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

নরেন্দ্র মোদি প্রথম বিদেশ সফরে যে দেশে যাবেন

ডেস্ক রিপোর্ট :
টানা তৃতীয়বারের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন নরেন্দ্র মোদি। তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তিনি প্রথম বিদেশ সফর হিসেবে ইতালি যাবেন।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইতালির ফাসানোতে পশ্চিমা সাত শক্তির রাজনৈতিক জোট জি-৭ শীর্ষ সম্মেলন আগামী ১৩ থেকে ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে । এ সম্মেলনে যোগ দেবেন মোদি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস–এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত দুই মেয়াদে নরেন্দ্র মোদি যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের সঙ্গে যে সম্পর্ক গড়েছেন, এবার তার আরও উন্নতি চান।

নরেন্দ্র মোদি জি–৭–এর ৫০তম সম্মেলনকে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের একটি সুযোগ হিসেবে দেখছেন।

এবারের জি–৭ সম্মেলনে একদিকে পশ্চিমাদের মধ্যে ক্রমবর্ধমান দ্বন্দ্ব এবং অন্যদিকে চীন-রাশিয়ান জোটের ক্রমবর্ধমান উত্থানের বিষয়টি তুলে ধরা হবে। এটি ভারতীয় কূটনীতির জন্য বড় ধরনের নতুন সুযোগের পাশাপাশি নতুন চ্যালেঞ্জও তৈরি করছে।

এছাড়া আগামী মাসের শুরুতে মোদি সাংহাই কো–অপারেশন অর্গানাইজেশনের এক সম্মেলনে যোগ দিতে কাজাখস্তান সফর করবেন।

সদ্য অনুষ্ঠিত ভারতের নির্বাচনের মোদি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট সরকার গঠন করার মতো প্রয়োজনীয় আসন পেলেও তার দল বিজেপি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। অপর দিকে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ‘ইনডিয়া’ জোট দুই শতাধিক আসন পেয়েছে। সরকার টিকিয়ে রাখতে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে শরিকদের ওপর নির্ভর করতে হবে।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়

ফের বাড়ল স্বর্ণের দাম

ডেস্ক রিপোর্ট :
দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ল। মূল্যবান এ ধাতুটির ভাল মান বা ২২ ক্যারেটের দাম গ্রামপ্রতি বাড়ল ৯২ টাকা। ঘোষিত নতুন দর অনুযায়ী, ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের ভরিপ্রতি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) দাম বেড়েছে এক হাজার ৭৩ টাকা। এতে এক ভরি স্বর্ণের দাম দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকা।

আজ মঙ্গলবার (১১ জুন) বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। অবশ্য এর আগে গত রোববার (৯ জুন) ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের ভরিপ্রতি দাম কমেছিল এক হাজার ২৯৫ টাকা। সেই সময় এক ভরি স্বর্ণের দাম দাঁড়িয়েছিল এক লাখ ১৫ হাজার ৮৮২ টাকা।

বাজুস জানায়, স্থানীয় বাজারে তেজাবী স্বর্ণের দাম বেড়েছে। আজ সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বর্ণের নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে, যা আগামীকাল বুধবার (১২ জুন) থেকে তা কার্যকর হবে।

নতুন দর অনুযায়ী, আগামীকাল বুধবার থেকে ২২ ক্যারেটের ভরিপ্রতি স্বর্ণ এক লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকায় বেচাকেনা হবে। পাশাপাশি আগামীকাল থেকে ২১ ক্যারেটের ভরিপ্রতি স্বর্ণের দাম এক লাখ ১১ হাজার ৬৩৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম ৯৫ হাজার ৬৯১ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ ৭৯ হাজার ১১৭ টাকায় বেচাকেনা করা হবে।

আজ ২২ ক্যারেটের ভরিপ্রতি স্বর্ণ এক লাখ ১৫ হাজার ৮৮২ টাকায় বেচাকেনা হয়েছে। পাশাপাশি ২১ ক্যারেটের ভরিপ্রতি স্বর্ণের দাম এক লাখ ১০ হাজার ৬১০ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম ৯৪ হাজার ৮১৭ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ ৭৮ হাজার ৩৮২ টাকায় বেচাকেনা হয়েছে। স্বর্ণের দাম কমানো হলেও অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে রুপার দাম। ক্যাটাগরি অনুযায়ী বর্তমানে ২২ ক্যারেটে ভরিপ্রতি রুপার দাম দুই হাজার ১০০ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম দুই হাজার ৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম এক হাজার ৭১৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম এক হাজার ২৮৩ টাকা।

বরিশাল অবজারভার / হৃদয়