বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১১:১২ পূর্বাহ্ন

সর্বহারা অধ্যুষিত গৌরনদীর সরিকল ইউনিয়নে কেন্দ্র দখলের পায়তারা

সর্বহারা অধ্যুষিত গৌরনদীর সরিকল ইউনিয়নে কেন্দ্র দখলের পায়তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক ||
আসন্ন ২১ জুন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার সরিকল ইউনিয়নে একাধিক কেন্দ্র দখলের পায়তারা করেছে কতিপয় সন্ত্রাসী গ্রুপ। এ নিয়ে আতংকে রয়েছে চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ একাধিক মেম্বর প্রার্থী। সন্ত্রাসীরা ইউপি সদস্যর পক্ষ অবলম্বন করে ভোটারদের প্রকাশ্যে হুমকি ধামকি দিয়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করছে। আগে ভাগেই অথ্যাধিক ঝুঁকি পূর্ন কেন্দ্রগুলোর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন নিরিহ প্রার্থী ও সাধারন ভোটাররা।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় লোকজন, প্রার্থী ও ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছ, আসন্ন ২১ জুন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গৌরনদীর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ৬টি বিনাপ্রতিদ্বন্ধীতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। শুধুমাত্র সরিকলে চেয়ারম্যানসহ মেম্বর প্রার্থীর মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। অন্যা ৬টি ইউনিয়নে সদস্যদের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বরিশালের উত্তর জনপদ গৌরনদীর সরিকল ইউনিয়ন ছিল রক্তাক্ত জনপদ। এখানে সর্বহারা অধ্যুষিত হওয়ায় এখানকার মানুষ বরাবরই আতংকে ছিল। এবারে এক সময়ে সর্বহারা আঞ্চলিক নেতা সুভাষ হালদার ও বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন মোল্লার মধ্যে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধীতা হচ্ছে। ফলে সাধারন মানুষ সুষ্ঠ ভোট নিয়ে আতংকে রয়েছে। পাশ্পাাশি এলাকার কতিপয় সন্ত্রাসী গ্রুপ ইউপি সদস্যদের পক্ষ অবলম্বন করে কেন্দ্র দখলে পরিকল্পনা করে ভোটারদের হুমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাধারন ভোটাররা জানান, সরিকল ইউনিয়নের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ন কেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে ২নং ওয়ার্ডের সাকোকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪নং ওয়ার্ডের সোনার বাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এখানে কেন্দ্র দখলের প্রস্তুতি নিয়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করছে। ২নং ওয়ার্ডের সাকোকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রটি অত্যাধিক ঝুঁকিপূর্ন কেন্দ্রে । ২নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য হুমায়ুন কবির (ফুটবল) ও ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য রনি মোল্লা (মোরগ)। এ কেন্দ্রে সন্ত্রাসীদের ভাড়া করে কেন্দ্র দখলের প্রস্তুুতি চলছে। এমন কি আগে থেকেই ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি শুরু হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে প্রতিপক্ষ সমর্থকদের উপর হামলা করে ভীতির সৃষ্টি করা হচ্ছে। ইউপি সদস্য প্রার্থী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য হুমায়ুন কবির (ফুটবল)অভিযোগ করে বলেন, আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী রনি মোল্লা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী ও সর্বহারা ভাড়া করে কেন্দ্র দখলের পায়তারা করেছে। তারা প্রকাশ্যে কেন্দ্র দখলের ঘোষনা দিয়ে বেড়াচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আমার সমর্থক লতু খানের বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দিচ্ছে রনি মোল্লার সন্ত্রাসী বাহিনী। ভোটের দিন আমাকে বাড়ি থেকে বের হতে দিবে না বলে রনি মোল্লা ও তার ভাড়াটে সন্ত্রাসী বাহিনীর নেতা নাসির মোল্লা প্রকাশ্যে জনসভায় ঘোষনা দিয়ে এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি করে চলছে। ২০০১ সালে সংখ্যালঘু নির্যাতনকারী জহির উদ্দিন স্বপনের ক্যাডার হিসেবে পরিচিত আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারীর নব্য আওয়ামীলী যুবলীগ নেতা নাসির মোল্লার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন, বাড়ি দখল, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ বিস্তার অভিযোগ রয়েছে। আওয়ামীলীগে যোগদান করে গত কয়েক বছরে অঢেল সম্পদের মালিক হয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তোলে নাসির মোল্লা। ওই বাহিনী নিয়ে কেন্দ্র দখলের ঘোষনা দিয়েছে মাঠ গরম করছে। ইউপি সদস্য প্রার্থী হুমায়ুন কবির সুষ্ঠ নির্বাচনের স্বার্থে অত্যাধিক ঝুঁকিপূর্ন ২নং ওয়ার্ডের সাকোকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে র‌্যাব, বিজিপিসহ অতিরিক্ত আইন শৃংখলা বাহিনী মোতায়েন করার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

এদিকে সরিকল ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন মোল্লা জানান, শেখ হাসিনা সরকারের সময়ে সর্বহারা ও সন্ত্রাসী অধ্যুষিত সরিকল ইউনিয়ন শান্তির জনপদে পরিনত হয়েছে। নির্বাচনকে ঘিরে আবার কতিপয় সন্ত্রাসী জড়ো হচ্ছে। তারা একাধিক কেন্দ্র দখলের পায়তারা করছে। আমি অত্যাধিক ঝুঁকিপূর্ন ২নং ওয়ার্ডের সাকোকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪নং ওয়ার্ডের সোনার বাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ঝুঁকিপূর্ন কেন্দ্রগুলোতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার জন্য প্রশাসনের প্রতি দাবি জানাচ্ছি। নির্বাচন অফিসার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ন অবাধ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা হাতে নেওয়া হয়েছে। গৌরনদী মডেল থানার ওসি মোঃ আফজাল হোসেন বলেন, সন্ত্রাসীর পরিচয় যাই হোক, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। কঠোর নজরদারি ও ভোটারদের নিরাপত্তা দিয়ে ভোট কেন্দ্রর শান্তি শৃংখলা রক্ষা করা হবে। যাতে সাধারন ভোটাররা নির্ভয়ে ভোট দিতে পারেন সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপিন চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশে সুষ্ঠ অবাধ ও শান্তিপূর্ন নির্বাচনের জন্য সকল ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হবে। কোন সন্ত্রাসীকে ছাড় দেয়া হবে না। অত্যাধিক ঝুঁকিপূর্ন কেন্দ্রগুলোর অতিরিক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY Next Tech