সেনা মোতায়েনের মত পরিস্থিতি বরিশালে নেই- সাদিক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন, ৩০ তারিখ ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যাবেন ।আপনাদের যাকে খুশি তাকে ভোট দিয়ে এই সিটি করপোরেশনের উন্নয়ন তরান্নিত করবেন। শনিবার (২১ জুলাই) বরিশাল নগরের ফজলুল হক এ্যাভিনিউতে গনসংযোগকালে তিনি এ কথা বলেন।ওইসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, যার ডিজিটাল সম্মন্ধে কোন আইডিয়া নেই, সেই বলতে পারে যে ইভিএম এ ডিজিটাল কায়দায় কারচুপি হতে পারে। আমি ইভিএম চাচ্ছি কারণ ইভিএম-এ একজনের ভোট আরেকজনের এসে দেয়া সম্ভব নয়, আর ভোট গননা টাও তারাতারি হয়ে যাবে। এসময় তিনি প্রতিদ্বন্দী বিএনপির প্রার্থীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, সে (বিএনপির প্রার্থী) ইভিএম চায়নি, আমি তো বুঝেছিলাম সে বেশি করে ইভিএম চাইবে। সেনা মোতায়েনের বিষয়ে তিনি বলেন, সেনা মোতায়েনের বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের। তবে সেনা মোতায়েনের মতো কোন পরিস্থিতি বরিশালে বিরাজমান নয়।গনসংযোগকালে তার সাথে মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুব উদ্দিন বীর-বীক্রমম মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আফজালুল করীম, সাইদুর রহমান রিন্টু, সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট একে এম জাহাঙ্গীর হোসেনসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বরিশালস্থ বাকেরগঞ্জবাসীর সাথে সাদিক আবদুল্লাহর মতবিনিময়

 স্টাফ রিপোর্টার: বরিশালস্থ বাকেরগঞ্জবাসীর সাথে মতবিনিময় করেছেন আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাদ সাদিক আবদুল্লাহ। বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে গতকাল বিকেল ৪টায় নৌকার কান্ডারীকে বিজয়ী করতে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামসুল আলম চুন্নুর সভাপতিত্বে ও পৌর মেয়র উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ লোকমান হোসেন ডাকুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাদ সাদিক আবদুল্লাহ। সভায় বক্তব্য ছিলেন বরিশাল মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, সাধারণ সম্পাদক এড. একেএম জাহাঙ্গীর, বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাইদুর রহমান রিন্টু, জেলা পরিষদ সদস্য আইরিন রেজা, মোঃ শহিদুল ইসলাম হাওলাদার, নিয়ামত আবদুল্লাহ পলাশ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, যুগ্ম-সম্পাদক সৈয়দ মোজাম্মেল, অমল চন্দ্র দাস শিবু, সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জিএম ফারুকী, তহমিনা বেগম মিনু, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মোখলেচুর রহমান, চরামদ্দি ইউপি চেয়ারম্যান গাউসেল আজম লাল, কলসকাঠী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক তালুকদার মনু, গারুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান এএসএম জুলফিকার হায়দার, রঙ্গশ্রী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ বসির সিকদার, চরাদি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম, দুধল ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোর্শেদ উজ্জল, ভরপাশা ইউপি আসাদ খান, নিয়ামতি ইউপি চেয়ারম্যান মাছুম মাস্টার, ফরিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান এস এম শফিকুর রহমান, দূর্গাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাসার সিকদার, কবাই ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল হক বাদল তালুকদার, পাদ্রীশিবপুর ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান বাবু, দারিয়াল ইউপি চেয়ারম্যান এম এ জব্বার বাবুল, পৌর যুবলীগ সভাপতি খন্দকার জিয়াউর রহমান রিপন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম ডাকুয়া, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আমিরুজ্জামান রিপন, সাবেক চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান রিপন, সাবেক ছাত্রনেতা এস এম আতিকুর রহমান, শ্রমিকলীগ নেতা মোঃ কালাম ডাকুয়া, বাকেরগঞ্জ উন্নয়ন ফোরামের সসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বজলুল রহমান খান, সাধারন সম্পাদক এ্যাড আসাদুজ্জামান কচি, সভায় বক্তারা আগামীর বরিশাল গড়তে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাদ সাদিক আবদুল্লাহকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে বরিশালস্থ বাকেরগঞ্জবাসীর প্রতি উদাক্ত আহবান জানান।

ভোট কারচুপি হলে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু- নোমান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ৩০ই জুলাই বরিশাল আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সময় যতই কমে আসছে মেয়র প্রার্থী সহ কাউন্সিলরদের গনসংযোগ ও প্রচার প্রচারনা জোড় কদমে চালিযে যাচ্ছেন।
বরিশাল সিটি নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ধানের মীষের মনোনিত প্রার্থী কেন্দ্রীয় বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারের সমর্থনে নগরীর বিভিন্ন অলিগলিতে প্রচার-প্রচারনায় অংশ নিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপি উচ্চ প্রর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
আজ শনিবার (২১ই) জুলাই সকাল ১১টায় নগরীর কাশীপুর বাজারের ধানে শীষের প্রচার কালে ইলেক্টনিক্্র ও গনমাধ্যমেকে কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ-আল-নোমান বলেন, বরিশাল সিটি নির্বাচনে কোন প্রকার ভোট কারচুপি করা হলে এখান থেকে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে।
তিনি বলেন নির্বাচন কমিশন আমাদের সমান সুযোগ দিচ্ছে না।সরকারী দলের প্রার্থীর সমর্থকরা মিছিল সহ অতিরিক্ত সময় নষ্ঠ করে মিটিং করছে সেখানে কোন ধরনের বাধা নেই আমাদের নির্ধারিত সময়ের আগেই আমাদের সভা বন্ধ করে দিচ্ছে।
আমরা কোন সমান সুযোগ পাচ্ছি না।
ভাইস চেয়ারম্যান নোমান আরো বলেন খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনে যে অনিয়ম হয়েছে নির্বাচন কমিশন তা স্বীকার করে নিয়েছে।
আমরা চাই একটি সুষ্ঠ,সুন্দর নির্বাচন।
নোমান আরো বলেন বরিশালে নির্বাচন কমিশন যেভাবে কথা বলেছে পুলিশ প্রশাসন সহ সরকারী কর্মকর্তারা সঠিকভাবে দায়ীত্ব পালন না তারা আমাদের কাজে বাধা প্রদান করার কাজে ব্যস্থতা দেখাচ্ছে।
আমরা বলতে চাই নির্বাচন কমিশন মাহাবুব তালুকদার প্রার্থীদের উপস্থিতিতে যে কথা বলেছে তা যদি সঠিক ভাবে তার ওয়াদা পালন করে তাহলে ধানের শীষের প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করবে।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক সাংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী বেগম সেলিমা রহমান,কেন্দ্রীয় বিএনপি সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য মেজবা উদ্দিন ফরহাদ,মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা বিএনপি সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম লাবু,সাধারন সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন দিপেন,নুরুল আলম রাজু,আসাদুজ্জামান মুক্তা সহ হিজলা ও মেহেন্দিগঞ্জের বিএনপি ও দলীয় অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ধানের শীষ মার্কার সমর্থনে লিফলেট বিতরন ও গনসংযোগ করেন।
এর পূর্বে আবদুল্লাহ আল নোমান ও সেলিমা রহমান কাশীপুর বাজারে আসার পূর্বে এয়ারপোর্ট থানার এস আই অরবিন্দ চার/পাঁচজন করে গনসংযোগ করার নির্দেশ দেন।
পরে তারা কাশীপুর বাজার,সহ ফিসারীরোড, সহ ২৮ নংওয়ার্ড থেকে শুরু করে উক্ত এলাকার বাসাবাড়ি পথচারীদের কাছে ধারে শীষ মার্কায় ভোট প্রত্যাশা করেন।

খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে- আ.স.ম ফিরোজ

এম.এ হান্নান, বাউফলঃ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আলহাজ্ব আ.স.ম ফিরোজ (এমপি) বলেছেন, ‘আইনের উর্ধে কেউ না। খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে, গরিবের হক নষ্ট করেছে। তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক , সাজা দিয়েছে কোটর্’।
তাকে (খালেদা জিয়া) মামলা আ’লীগ দেয়নি, সাজা আ’লীগ দেয়নি। তাহলে আ’লীগের দোষ দিচ্ছে কেনো বিএনপি!
শনিবার (২১জুলাই) বাউফল মুক্তিযোদ্ধা অডিটরিয়ামে বাউফল উপজেলা যুবলীগ , সেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের ‘বিশেষ প্রতিনিধি সভায়’ প্রধান অতিথির বক্তিতায় এসব কথা বলেন তিনি।
এসময় তিনি ‘বর্তমান সরকারে বিভিন্ন উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরেন। আগামী জাতীয় সংসদ নিবার্চনে আবার আ’লীগ সরকারকে ক্ষমতায় আনার জন্য নেতা-কর্মিকে নৌকার পক্ষে কাজ কারার জন্য নিদের্শ দেয়’।
সভার সভাপতিত্ব করেন, বাউফল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাহজাহান সিরাজ।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, চীফ হুইপ’র সহধর্মিনী দেলয়ারা সুলতানা ফিরোজ।বাউফল উপজেলা আ’লীগ সাধারন সম্পাদক আবদুল মোতালেব হাওলাদার। উপজেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি ও উপজেলা ভাইস- চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন খাঁন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সাবেক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা কমন্ডার সামছুল আলম মিয়া। উপজেলা আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাজিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম ফারুক। চীফ হুইপ’র এপিএস আনিসুর রহমান। সাংগঠনিক সম্পাদক ও সূর্যমনি ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বাচ্চু। বাউফল উপজেলা যুবলীগ সাধারন সম্পাদক ও কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম ফয়সাল আহম্মেদ। উপজেলা সেচ্চাসেবকলীগ সভাপতি ও হারুন আর রশিদ খাঁন, সাধারন সম্পাদক রিয়াজ সিকদার। কেশাবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন লাভলু । সেচ্চাসেবকলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ও চন্দ্রদ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক আলকাছ। বাউফল পৌর যুবলীগ সভাপতি মামুন খাঁন। উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি (একাংশ ) মাহামুদ হাসান রুবেল, সাধারন সম্পাদক সামছুল কবির নিশাত ও পৌর ছাত্রলীগ আহ্বায়ক নিয়াজ মোর্শেদ প্রমূখ।
সভায় বিভিন্ন ইউনিয়ন যুবলীগ, সেবকলীগ ও ছাত্রলীগের প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।

সমস্যা সমাধানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হলেন আ’লীগ-বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ‘বরিশাল সিটি করপোরেশনে নাগরিক অগ্রাধিকার’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গোল টেবিল বৈঠকে অংশ গ্রহণ করেছেন বরিশাল নগরের আ’লীগ ও বিএনপির বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দ। এই গোলটেবিল বৈঠকে স্থানীয় নাগরিক সমাজের ৮০ জন প্রতিনিধিবৃন্দ, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং সাংবাদিকবৃন্দ ৫টি প্রধান স্থানীয় ইস্যুতে তাঁদের সুচিন্তিত সুপারিশ মালা তুলে ধরেন। গোলটেবিল বৈঠকে উঠে আসে উন্নত সড়ক ব্যবস্থা, পর্যাপ্ত পয়নি:ষ্কাশন, আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, কেন্দ্রীয়ভাবে পার্কিং সুবিধা, পথচারীদের জন্য রাস্তায় পর্যাপ্ত পদচারণা ব্যবস্থা গ্রহণ, নারী ও পুরুষের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট নির্মাণ সহ শহরের মাস্টার প্ল্যান বাস্তবায়নের জন্য সঠিক অবকাঠামো তৈরি করা। দখলকৃত ও ভরাট হয়ে যাওয়া নদীর তীর ও খালগুলো পুনরুদ্ধার করে জলাবদ্ধতা সমস্যা দূরীকরণ, কীর্ত্তনখোলা নদী ও খাল ড্রেজিং করা, খাল সম্প্রসারণ, ড্রেইনগুলোর নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ, পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার নিষিদ্ধকরণ। সব বয়সী নাগরিকদের জন্য পার্ক, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, খেলার মাঠ নির্মাণ, নদীর ধারে হাঁটার জায়গা ও বেঞ্চ তৈরি করা, নিয়মিত ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা। নারীদের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা, নিরাপদ পরিবহন নিশ্চিত করা, নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বাজার নির্মাণ, হোস্টেল, শিশুদের জন্য দিবা যতœ কেন্দ্র স্থাপন, নারীদের জন্য পৃথক পাবলিক টয়লেট স্থাপন এবং কম হারে ট্রেড লাইসেন্স ইস্যুকরণসহ সর্বোপরি নারী-বান্ধব নগর তৈরি করা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বাবা – মায়েদের মধ্যে জনসচেতনতা গড়ে তোলার মাধ্যমে অবৈধ মাদক ব্যবসা বন্ধ করা, আইনের যথার্থ বাস্তবায়ন এবং মাদকাসক্তদের জন্য আধুনিক পুনর্বাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল এর আয়োজনে বরিশালের জনসাধারণের দৃষ্টিতে জনগুরুত্বপূর্ণ নাগরিক ইস্যুগুলো নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন বরিশাল মহানগর আ’লীগের সভাপতি আ্যডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, বরিশাল মহানগর আ’লীগের জেষ্ঠ্য সহ-সভাপতি আ্যডভোকেট আফজালুল করিম, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আ্যডভোকেট বিলকিস জাহান শিরিন, বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি জনাব মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ। উভয় দলের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ নাগরিক সমাজের তুলে ধরা নাগরিক সমস্যাগুলোকে প্রকট বলে মনে করেন। বরিশালের স্থানীয় এই সমস্যাসমূহ সমাধানে তাঁরা তাদের দলের পূর্ব সফলতা এবং সমাধান বাস্তবায়নে মেয়র পদপ্রার্থীদের পরিকল্পনার ব্যাপারে আলোচনা করেন। এছাড়া, অনুষ্ঠানে আ’লীগ ও বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ নির্বাচনের পূর্বে ও পরে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করবেন বলে প্রতিশ্রুতি জানান। বরিশাল মহানগর আ’লীগের সভাপতি আ্যডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরি দুলাল বরিশালেকে একটি অপরাধমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য উভয় দলের রাজনৈতিক নেতাকমীবৃন্দ ও নাগরিকদের একসাথে কাজ করে যেতে অনুরোধ করেন। বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট বিলকিস জাহান শিরিন শান্তিপূর্ণ বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আহ্বান জানান। উপস্থিত অন্যান্য নেতৃবৃন্দ এই আহ্বানে ইতিবাচকভাবে সাড়া দেন।

বরিশালে বখাটের বেপরোয়া গতি কেড়ে নিল মেধাবী ছাত্রীর প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাবার সামনে বখাটের বেপরোয়া গতির মোটরসাইকেল কেড়ে নিয়েছে মেধাবী ছাত্রী মিনহাজ হাসান মিলিকে। বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপির উদ্যোগে তিনদিন আইসিইউ’তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে মৃত্যুর কাছে হার মেনেছে মিনহাজ হাসান মিলি। সে (মিলি) জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার পূর্ব পয়সা গ্রামের টিএস নজরুল ইসলামের কন্যা ও গৈলা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ১০ম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী ছিলো। এ ঘটনায় পুরো উপজেলা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
নিহত মিলির পিতা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে তিনি উপজেলা সদর থেকে তার কন্যা মিলিকে ডাক্তার দেখিয়ে মাহেন্দ্রযোগে সন্ধ্যায় নিজের বাড়ি সামনের নেমে ভাড়া পরিশোধ করছিলেন। এসময় পাঁচটি মোটরসাইকেলে বখাটেরা বেপারোয়া গতিতে যাবার সময় একটি মোটরসাইকেল মিলিকে ধাক্কা দিয়ে ১০ থেকে ১৫ হাত ছেঁছড়ে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যায় বখাটেরা।
স্থানীয়রা এগিয়ে এসে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় মিলিকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন। মঙ্গলবার রাতেই স্থানীয় এমপি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর উদ্যোগে মিলিকে শেবাচিম হাসাপাতালের আইসিইউ’তে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকাল দশটার দিকে মিলি মারা যায়। মিলি জেএসসি’তে গোল্ডেন এ (+) পেয়েছিল।
নিহত মিলির চাচা জব্বার তালুকদার জানান, বখাটেদের ফেলে যাওয়া মোটরসাইকেলের মালিক মুলাদী উপজেলার বাটামারা ইউনিয়নের আতাহার আকনের পুত্র রিফাত আকন। আগৈলঝাড়া থানার ওসি মোঃ আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

শহীদদের স্মরনে লাগানো গাছ উপড়ে ফেলেছে দুবৃত্তরা

আমতলী প্রতিনিধিঃ শহীদদের স্মরনে দেয়া বিদ্যালয়ের গাছ উপড়ে ফেলেছে একদল দুবৃত্তরা। ঘটনা ঘটেছে তালতলী উপজেলার ১৪ নং আলীরবন্দর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার। এ ঘটনা এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। স্থানীয়রা দুবুত্তদের দ্রুত বিচার দাবী করছেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হাফিজুর হক শিকদার তালতলী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন।
জানাগেছে, উপজেলার আলীরবন্দর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৯৪২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ওই সময় স্থানীয় আবদুর রশিদ খান বিদ্যালয়ের নামে ৭৮ শতাংশ জমি দান করেন। ওই জমি সংলগ্ন ৫২ শতাংশ জমি সরকারী খাস খতিয়ানভুক্ত রয়েছে। এ জমিতে বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পরে সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে বিদ্যালয় পরিচালিত হয়ে আসছে। ২০১৭ সালে ওই বিদ্যালয়ের জমি জহিরুল খান, আইউব আলী খান, ইয়াসিন খান, জাকির খান ও সিদ্দিক খান নিজেরে দাবী করে ভোগ দখলের চেষ্টা করে আসছে। গত বুধবার সারাদেশ ব্যাপী শহীদ স্মরনে বিদ্যালয়ে গাছ রিতরন করেন সরকার। ওই বিদ্যালয়ে বিভিন্ন প্রজাতির শতাধিক ফলদ ও বনজ গাছ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ফারজানা আক্তার বিতরন করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই গাছ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা রোপন করে। চারা রোপনের দু’ঘন্টার মধ্যে ওই দুবৃত্তরাসহ ১৫/২০ জন দুবৃত্ত মিলে সকল চারা গাছ উপড়ে ফেলে। শিক্ষকরা এতে বাঁধা দিলে দুবৃত্তরা শিক্ষকদের লাঞ্চিত করার চেষ্টা করে। এ সময় বিদ্যালয়ের দুই শতাধিক শিক্ষার্থীসহ তিন শতাধিক লোকজন উপস্থিত থেকে ঘটনা প্রত্যক্ষ করে। পরে তালতলী থানাকে অবহিত করলে দুবৃত্তরা গাছ নিয়ে পালিয়ে যায়। ওইদিন বিকেলে তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ ফারজানা আক্তার খবর পেয়ে বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, কিছু বোঝার আগেই জহিরুল খান, আইউব আলী খান, ইয়াসিন খান, জাকির খান ও সিদ্দিক খানসহ ১৫/২০ জনে বিদ্যালয়ের জমিতে লাগানো গাছ উপড়ে ফেলে নিয়ে গেছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলহাফ হোসেন মোবারক বলেন, দুবৃত্তরা প্রকাশ্যে দিবালোকে এসে আমাদের হুমকি দিয়ে শহীদদের স্মরনে দেয়া গাছ উপড়ে ফেলে গাছ নিয়ে গেছে। এ ঘটনার দ্রুত বিচার দাবী করছি।
জহিরুল ইসলাম খান জানান, আমার জমিতে রোপিত গাছ উপড়ে ফেলেছি। আমি বিদ্যালয়ের গাছ উপড়ে ফেলিনি।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হাফিজুর হক শিকদার বলেন, দুবৃত্তরা শহীদদের স্মরনে দেয়া গাছ উপড়ে ফেলে শহীদদের অবমাননা করেছে। এ বিষয়ে তালতলী থানায় দুবৃত্তদের নামে সাধারণ ডারেয়ী করেছি।
তালতলী থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ শহীদুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হাফিজুর হক সিকদার সাধারণ ডায়েরী করেছে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ ফারজানা আকতার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। প্রতিবেদন পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিটি নির্বাচনের প্রচারনায় সরগরম বরিশাল নগরী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বরিশাল নগরবাসীর উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট চাইছেন ভোটারদের কাছে প্রার্থীরা। সকাল থেকে রাতঅবধি তারা প্রচারণা চালাচ্ছে। কেবল সাত মেয়র প্রার্থীই নন; ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর প্রার্থীরাও।
এদিকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ জোর কদমে চালিয়ে যাচ্ছেন তার প্রচারণা। প্রতিদিন তিন থেকে চারটি উঠান বৈঠকের পাশাপাশি গণ সংযোগ করছেন। এতে করে ভোটারদের বেশ সাড়া পাচ্ছেন বলে জানান তিনি।
বিএনপির মেয়র প্রার্থী আজ নগরীর পলাশপুর থেকে গণ সংযোগ শুরু করেন। তিনি বলেন, জোর প্রাচারণা চলছে এবং তিনি বিজয়ী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
জাতীয় পাটির মেয়র প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস আজ সকাল থেকে নগরীর বালুর মাঠ কলোনী থেকে তার হনসংযোগ শুরু করেন।
তিনি বলেন বরিশাল সিটি নির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকের সমর্থক পূর্বের চেয়ে অনেক ভাল অবস্থানে বরিশালে মানুষ লাঙ্গল প্রতীককে ভালবাসে যদি বরিশালে সুষ্ঠ নির্বাচন হয় তাহলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
এছাড়া অপর চার মেয়র প্রার্থী তারাও কিন্তু বসে নেই বরিশাল নগরীর ত্রিশটি ওয়ার্ডের সকল স্থানে তাদের পায়ের পদচারনা পড়ছে তারাে বরিশালকে একটি সুস্থ নগরী উপহার দেয়ার প্রতিশ্র“তি দিয়ে দোয়া চাইছেন।
আজ স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বশির আহমেদ তার ৩১ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে।

বরিশালে জিপিএ ৫ পেল সাংবাদিক কন্যা বিথী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বরিশাল অমৃত লাল দে মহা বিদ্যালয় থেকে এইচ এস সি পরিক্ষায় মানবিক বিভাগ থেকে এ+ পেয়েছে সাংবাদিক শামীম আহমেদ এর মেঝ কণ্যা শাররীন আহমেদ বিথী। কলেজের সকল শিক্ষক/ শিক্ষিকা সহ সকলের কাছে দোয়া প্রত্যাশা কামনা করেন।

ভোট চুরির রাজনীতি বিশ্বাস করি না- সাদিক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের মনোনিত প্রার্থী বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ্ তিনি নিজেও বসে নেই।
নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছেন ততই গনসংযোগ লিফলেট বিতরন,উঠান বৈঠকের পাশাপাশি নির্বাচনের জন্য কর্মী সভার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।
বরিশাল সিটি নির্বাচনে দু’জন তরুন মেয়র প্রার্থী রয়েছে একজন বাসদের মনিষা চক্রবর্তী অপরজন নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী নগরবাশীর কাছের ও মনের মানুষ হিসাবে নিজেকে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে।
গনসংযোগ কালে তিনি বলেন ধানের শীষের প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার নির্বাচনে সুষ্ঠ ভোট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।
তাই তিনি নিজে তার নিজ কেন্দ্রে ইভিএম পদ্বতির ভোট প্রদানের জন্য দরখাস্ত করেছেন।
এছাড়া সাদিক আবদুল্লাহ্ বলেন ধানের শীষ প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার সে নিজেই তার দলের মধ্যে গ্রহন যোগ্যতা হারিয়ে দিশেহারা হয়ে প্রতিপক্ষের উপর দোষ চাপিয়ে নিজের সমস্যা আড়াল করার চেষ্টা করছেন।
তিনি বলেন বরিশালে সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে নির্বাচন হবে এখানে কোন ভোটারদের ভয়ের কোন কারন নেই।
আমি ভোটের রাজনীতিতে বিশ্বাষ করি ভোট চুরির রাজনীতি বিশ্বাষ করি না যা অতিতে তারা মানুষের ভোটের অধিকার হরন করেছে।
পরে তিনিও তার নির্বাচনী দিনব্যাপি গনসংযোগ সহ বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত ৮,১৪,২২ ও নং ওয়ার্ড সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডে গন সংযোগ ও উঠান বৈঠক করেন।
এছাড়া নৌকার সমর্থনে নগরীতে বাবুগঞ্জ-মুলাদীর জন প্রিয় আওয়ামীলীগ নেতা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান সহ বিভিন্ন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতারা নগরীতে গন সংযোগ করেন।