মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন

পাবনায় বেড়েছে ছিনতাই, ধরাছোঁয়ার বাইরে দুর্বৃত্তরা

পাবনায় বেড়েছে ছিনতাই, ধরাছোঁয়ার বাইরে দুর্বৃত্তরা

ডেস্ক রিপোর্ট :

পাবনায় একের পর এক ঘটছে ছিনতাইয়ের ঘটনা। গত কয়েকদিনে ঘটে গেছে কয়েকটি। হয়েছে ১৩ লাখ টাকা ছিনতাই। গতকাল শনিবার বিকেলেও এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে ১৫ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। যদিও ওই ব্যবসায়ীর প্রতিরোধে পিছু হটতে বাধ্য হয় দুর্বৃত্তরা।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে, প্রকাশ্য দিবালোকে পরিবহণ ও চাল ব্যবসায়ীর তিন লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ১১ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি ছিনতাইকারীরা। এ নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মনিরুল ইসলাম।

মনিরুল জানান, গত ২২ সেপ্টেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টায় জনতা ব্যাংক করপোরেট শাখা থেকে তিন লাখ টাকা এবং এক লাখ টাকার চেক একটি কালো চামড়ার ব্যাগে নিয়ে রিকশায় করে অনন্ত বাজার এলাকার বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে শিবরামপুর কালাচাঁদপাড়া এলাকায় তিনজন ছিনতাইকারী একটি কালো মোটরসাইকেলে করে এসে রিকশার গতি রোধ করে। এ সময় তারা পিস্তল ও ধারাল অস্ত্র ধরে ভয় দেখিয়ে টাকার ব্যাগ জোর পূর্বক ছিনতাই করে নিয়ে যায়। তারা প্রকাশ্যে ছিনতাই করে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা একজন মাস্ক পরিহিত ও দুজন মুখ খোলা অবস্থায় ছিল। আশপাশের বাড়ির সিসি ক্যামেরায়ও ঘটনার ফুটেজ রয়েছে। এই ঘটনার ১১ দিনেও ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার বা ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘ছিনতাইয়ের ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে সদর ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা কাজ করছেন। সিসি টিভি ফুটেজ যাচাই করে অপরাধীদের গ্রেপ্তারে কাজ করছে পুলিশ। আশা করছি, দ্রুতই অপরাধীরা ধরা পড়বে।’

এদিকে, গত বৃহস্পতিবার পাবনার হাজিরহাট এলাকা থেকে কাপড় ব্যবসায়ী কামরুল ইসলাম খোকনকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে ১০ লাখ টাকা ছিনতাই করে সাভারে মহাসড়কে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায়ও খোয়া যাওয়া টাকা উদ্ধার এবং আসামিরা গ্রেপ্তার হয়নি।

গতকাল শনিবার বিকেলেও এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে ১৫ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। ওই ব্যবসায়ীর নাম শামস ইকবাল (৪০)। তিনি ছিনতাই প্রতিরোধ করতে পারলেও গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

আহত ব্যবসায়ী শামস ইকবালকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার রাজাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তিনি গ্রামীণ ফোনের আঞ্চলিক ডিলার। তিনি মালঞ্চি গ্রামের এস এম সারওয়ার হোসেনের ছেলে।

আহত ব্যবসায়ী শামস ইকবাল জানান, গতকাল রাতে তিনি আতাইকুলা এলাকা থেকে ব্যবসায়িক লেনদেনের ১৫ লাখ টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে পাবনায় ফিরছিলেন। হঠাৎ রাজাপুর এলাকায় একটি এলপিজি গ্যাস স্টেশনের সামনে পেছন থেকে আসা মোটরসাইকেল আরোহীরা তার টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিতে চেষ্টা করে। তিনি দ্রুত সামনে এগিয়ে গেলে দুর্বৃত্তরা পর পর কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এর একটি গুলি তার বাম হাতে বিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় শামস না থেমে সামনে এগিয়ে গেলে পিছু হটে ছিনতাইকারীরা।

পরে স্থানীয়রা ব্যবসায়ী শামসকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শামস ইকবালকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আশঙ্কামুক্ত। ছিনতাইচেষ্টার ঘটনা তদন্তে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে। সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনা হবে।’




Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY Next Tech