ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখুন ৫ উপায়ে

লাইফস্টাইল ডেস্ক :
বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের ত্বকের প্রোটিন কোলাজেন এবং ইলাস্টিন দুর্বল হতে শুরু করে। এর ফলে চোখ এবং মুখের চারপাশে বলিরেখা দেখা দেয়। সাধারণ জীবনধারার কারণ এবং আচরণের ফলে অকাল বার্ধক্য দেখা দিতে পারে।

ডাঃ গীতিকা মিত্তাল গুপ্ত, কসমেটোলজিস্ট এবং আন্তর্জাতিক নন্দনতত্ত্বের এমডি, হিন্দুস্তান টাইমসে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, ‘কোলাজেন এবং ইলাস্টিন দুটি ত্বকের প্রয়োজনীয় প্রোটিন। যা আপনার ত্বককে তারুণ্যের কোমলতা দেয়। এগুলো হ্রাস পেলে ত্বককে নিস্তেজ, পাতলা এবং কুঁচকানো দেখায়। সূর্যের এক্সপোজারে চোখের পাতা এবং ভ্রু কুঁচকে যায়।

পরিবারে হাইপারপিগমেন্টেশন থাকলে, এই লক্ষণগুলি তাড়াতাড়ি দেখা দেয়। বেশিরভাগ সময় খাদ্যাভ্যাস, পরিবেশগত এবং জীবনধারার বিভিন্ন কারণে আমাদের চেহারা এবং অনুভূতিকে প্রভাবিত করে। উচ্চ মাত্রার চিনি এবং কার্বোহাইড্রেট বা অতিরিক্ত অ্যালকোহল এবং ক্যাফিন সহ একটি খারাপ ডায়েট আপনার ত্বকের হাইড্রেশন কেড়ে নিতে পারে। অকাল বার্ধক্যের লক্ষণ সৃষ্টি করতে পারে। একইভাবে, ধূমপান শুধু অভ্যন্তরীণ ক্ষতিই করে না, এটি অক্সিডেটিভ স্ট্রেস সৃষ্টি করে। আপনার ত্বকে অকাল বার্ধক্যের সূত্রপাত করে। খারাপ ঘুমের অভ্যাস এবং অত্যধিক মানসিক চাপও আপনার ত্বকের বয়স বাড়িয়ে দেয়’।

  • ইউভি রশ্মি থেকে রক্ষা করুন

ইউভি রশ্মি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করুন। দিনের বেলা বাইরে বের হলে অবশ্যই সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এমনকি শীতকালেও বাইরে যাওয়ার সময় এসপিএফ ৩০ যুক্ত সানস্ক্রিন বেছে নিন। সানস্ক্রিন ব্যবহার করার আগে জেনে নিন এটি ইউভিএ এবং ইউভিপি উভয় রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে কিনা। রোদে বের হবার সময় ঢিলেঢালা ও হালকা রঙের পোশাক পড়ুন। লম্বা হাতার শার্ট এবং লম্বা প্যান্ট বা লম্বা স্কার্ট পড়ুন।

  • অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট জাতীয় খাবার

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের ক্ষতিকারক ফ্রি র‌্যাডিক্যালগুলির বিরুদ্ধে লড়াই করে। বার্ধক্যজনিত লক্ষণগুলি প্রতিরোধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হল খাবারের মাধ্যমে। যেমন- ব্রকলি, পালং শাক, গাজর, বিটরুট, মূলা, লেটুস, মিষ্টি আলু, আপেল, লাল আঙ্গুর, বরই বেশি করে খান। এ ছাড়া, পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

  • ত্বক পরিষ্কার রাখা এবং এক্সফোলিয়েটিং টোনারের ব্যবহার

ত্বক পরিষ্কার রাখার সর্বাত্নক চেষ্টা করুন। ত্বকের নিস্তেজতা এবং ব্রণ এড়াতে মুখ ধুতে হবে। মেকআপ রিমুভার দিয়ে মেকআপ ভাল করে তুলে ফেলুন। মুখ ধোয়ার সময় ভাল ক্লিনজার ব্যবহার করুন। হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করন। মুখ শুকনো করার জন্য অবশ্যই নরম তোয়ালে ব্যবহার করুন। প্রাকৃতিক টোনারের ব্যবহার করুন। এ ক্ষেত্রে, গোলাপ জল, সবুজ চা, ভিটামিন ই এবং সি এর মতো উপাদানগুলি বেছে নিতে পারেন।

  • ময়েশ্চারাইজ করুন

ত্বককে হাইড্রেটেড রাখতে প্রতিদিন সকালে বা ঘুমানোর আগে ময়েশ্চারাইজার লাগান। ময়েশ্চারাইজারে থাকা তেলগুলি ত্বকের আর্দ্রতা আটকে রাখে। ত্বক থেকে জল বের হতে বাধা দেয়। শুষ্ক ত্বকে সহজেই বলিরেখা দেখা দেয়।

  • নিয়মিত ব্যায়াম এবং ভাল ঘুম

নিয়মিত ব্যায়াম মানসিক চাপ কমায়। ব্যায়াম করলে ঘামের মাধ্যমে ত্বক থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের হয়ে আসে। ফলে ত্বকে বার্ধক্য আসতে দেরি হয়। রাত জাগা থেকে বিরত থাকুন। সকালে জলদি ওঠার চেষ্টা করুন। প্রতিদিন সাত থেকে নয় ঘণ্টার ঘুম আপনাকে সারাদিনের চাপ কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে। ভাল ঘুম ত্বকের এবং হাড়ের উন্নতি করে।

সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে র‌্যাগিং বন্ধের চেষ্টা করছি

ডেস্ক রিপোর্ট :
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘র‌্যাগিং একেবারেই নিষিদ্ধ। এটি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বন্ধ করার চেষ্টা করছি। অন্যান্য সামাজিক সমস্যার মতোই একটি সমস্যা র‌্যাগিং। শুধু আইন করে কিংবা শিক্ষকদের দিয়ে বলিয়েই হবে না। র‌্যাগিং বন্ধে এর বিরুদ্ধে মানসিকতা ও একটি সংস্কৃতি গড়ে তুলতে হবে।’

আজ বুধবার (১৫ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় দৌলতপুর কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান মেলা উদ্বোধন করে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সবাই চাওয়া সত্ত্বেও, আইন থাকা সত্ত্বেও বিশ্বের অনেক জায়গায় এখনও র‌্যাগিং হয়। এতে অনেক শিক্ষার্থীর জীবন ধ্বংস হয়ে যায়। এটি কারও কাম্য নয়। র‌্যাগিং বন্ধে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এতে গণমাধ্যমেরও ভূমিকা রয়েছে।’

এসময় শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি কার্যক্রমে হয়রানি ও ব্যয় কমেছে। তবে, নতুন কোনো সিস্টেম চালু করতে গেলে সেখানে কিছু সমস্যা হয়। এ ক্ষেত্রেও কিছু সমস্যা হচ্ছে।’ শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আগামী বছর থেকে অন্যান্য দেশের মতো সব বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে একটি পরীক্ষা হবে। জাতীয় একটি মেধা তালিকা হবে, সেই তালিকা অনুসারে ভর্তি হবে।’

এর আগে দীপু মনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান মেলা উদ্বোধন করেন ও স্টল ঘুরে দেখেন। উদ্বোধনী আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমানের সভাপতিত্ত্বে এসময় বক্তব্য দেন স্থানীয় দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য আ কা ম সরওয়ার জাহান বাদশা, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. শরীফ এনামুল কবির প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত দেশ, আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশ স্লোগানে দৌলতপুর কলেজে অনুষ্ঠিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান মেলায় ১৮টি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ অংশ নেয়।

ইংলিশদের ধুয়ে দিল ব্রিটিশ গণমাধ্যম

স্পোর্টস ডেস্ক :

সাদা বলের ক্রিকেটে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। নাক উঁচু ইংলিশরা বাংলাদেশ সফরে এসে প্রত্যাশিতভাবে জিতে নিয়েছিল ওয়ানডে সিরিজ। টি-টোয়েন্টি সিরিজটাও নিজেদের করে নেবে তারা, এমনটিই হয়তো ভেবেছিল জস বাটলারের দল।

কিন্তু পাশার দান উল্টে যায় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৬ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। অনেকেই ভেবেছিল পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াবে ইংল্যান্ড।

কিন্তু না, সেটি তো হয়ইনি, উল্টো দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৪ উইকেটে জিতে সিরিজ পকেটে পুরে নেয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচেই ইংল্যান্ডকে যে কোনো ফরম্যাটে প্রথমবার সিরিজে হারানোর ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশ।

আর শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডকে আরও বড় লজ্জায় ডুবায় বাংলাদেশ। এবার ইংলিশদের নিজেদের মাটিতে বাংলাওয়াশ করে সাকিব আল হাসানের দল। মিরপুর শেরেবাংলায় হারের মুখ থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইংলিশদের ১৬ রানে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দেয় টাইগাররা। এমন লজ্জা মেনে নিতে পারেনি ব্রিটিশ মিডিয়াগুলো। রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড দলকে।

ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান শিরোনামে লিখেছে, ‘২০১৬ সালের পর ইংল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিল বাংলাদেশ।’

দ্য টেলিগ্রাফ ইংল্যান্ড দলকে নিয়ে করেছে উপহাস। শিরোনাম দিয়েছে, ‘মাখন মাখানো ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিল বাংলাদেশ।’

ডেইলি মেইল শিরোনাম করেছে, ‘শোচনীয়ভাবে ইংল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ।’

তবে সবাইকে ছাপিয়ে গেছে দ্য টাইমসের শিরোনাম। ইংল্যান্ডে এখন শীত পড়ছে। সেটি তুলে ধরে তারা লিখেছে, ‘গোঙানিতে শেষ হলো ইংল্যান্ডের বিভ্রান্ত শীত!’