মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশালে মাদক মামলায় ১ ব্যক্তির ১০ বছরের কারাদণ্ড উজিরপুরে এমপি রুবিনা আক্তার মীরার পক্ষ থেকে কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মাদিন পালন তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নে তিন ক্যাটাগরিতে বিশেষ অবদান রাখায় প্রথম স্থানে বরিশাল শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন বরিশালের উপ-ভূমি সংস্কার কমিশনার বরিশালে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত ছয় মাস পর খুলে দেওয়া হল রমনা পার্ক শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে কাউখালীতে ছাত্রলীগের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদকের দোয়া ও মিলাদ বাকেরগঞ্জে বিভিন্ন আয়োজের মধ্য দিয়ে পালিত হলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন সর্ববৃহৎ বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ম্যুরাল উদ্বোধন করলেন বিসিসি মেয়র সাদিক

banner728x90

banner728x90

কারও অর্থবিত্ত দেখে আ’লীগে কোনো পদ দেয়া যাবে না: তথ্যমন্ত্রী

কারও অর্থবিত্ত দেখে আ’লীগে কোনো পদ দেয়া যাবে না: তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কারও অর্থবিত্ত দেখে আওয়ামী লীগে কোনো পদপদবি দেয়া যাবে না। অমুকের পয়সা আছে, দল চালাতে সুবিধা হবে– এ বিবেচনায় কাউকে পদ দেয়া যাবে না। এটি আমাদের দলের রাজনীতি ও আদর্শ নয়।

শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পাবনা জেলা শাখার তৃণমূল প্রতিনিধিসভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, পর পর তিনবার ক্ষমতায় থাকার কারণে দলের মধ্যে অনেক সুবিধাবাদী ও অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে। যারা একসময় আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কাজ করেছে এবং নেতাকর্মীদের নির্যাতন করেছে; তারা এখন এই সংগঠনের মধ্যে ঢুকে পড়েছে।

যারা অনুপ্রবেশকারী সুবিধাভোগের জন্য দল করছেন তাদের চিহ্নিত করে পদ থেকে তাদের সরিয়ে দিতে হবে। দল ও আদর্শের প্রতি নিষ্ঠা এবং নেত্রীর প্রতি একাগ্রতাই হবে দলীয় পদ পাওয়ার ক্ষেত্রে যোগ্যতা।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই সংকটে পড়েছে, তখন অনেক বড় নেতা ভোল পাল্টিয়েছে, অনেকে দল ছেড়ে চলে গেছে। এটি শুধু শেখ হাসিনার ক্ষেত্রে ঘটেছে তা নয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যখন আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিয়েছেন তখনও ঘটেছে।

১৯৪৯ সালে আওয়ামী লীগের জন্মের পর থেকে সমস্যার বাঁকে বাঁকে অনেক নেতা বাঁকা হয়ে দল থেকে চলে গেছে। দলের বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখেছে। কিন্তু তৃণমূলের কর্মীরা কখনও দলের সাথে বেঈমানি করেনি। তৃণমূল সবসময় দল ও নেতার সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ থেকেছে, বিশ্বস্ততার সাথে কাজ করেছে। সেই কারণে আওয়ামী লীগ আজ দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল এবং পরপর চারবার রাষ্ট্র ক্ষমতায়।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পরপর রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকার কারণে আমাদের অনেকের মধ্যে অলসতা এসেছে। এই আলস্য ঝেড়ে ফেলতে হবে। দলের কারণে সরকার, সরকারের কারণে দল নয়। আমাদের মূল ঠিকানা দল।

সুতরাং সবাইকে দলকে গুরুত্ব দিতে হবে। আমরা যারা নির্বাচিত এমপি, মন্ত্রী থেকে শুরু করে ইউপি চেয়ারম্যান পর্যন্ত সবার মূল ঠিকানা হচ্ছে দল। সবাই এখন দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে জয়ী হয়েছেন। দলের কারণে সবাই আমরা পদের মধ্যে আছি। সুতরাং দায়িত্ব পালন করার সময় দলের নেতাকর্মীদের গুরুত্ব দিতে হবে।




banner728x90

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

banner728x90




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY AMS IT BD