সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ১২:০০ অপরাহ্ন

banner728x90

ভোলায় এসটি খিজিরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

ভোলায় এসটি খিজিরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্ত স্বাপেক্ষে লঞ্চ চলাচলের কথা থাকলেও ভোলা থেকে বিভিন্ন নৌ রুটে চলাচল করা লঞ্চগুলোতে তা মানা হচ্ছে না। লঞ্চ চালুর পর থেকে প্রতিদিনই অসংখ্য যাত্রী নিয়ে হুড়োহুড়ি গাদাগাদি করে লঞ্চে তোলা হচ্ছে যাত্রী। এতে করে করোনা ভাইরাসের মারাত্মক ঝুঁকি দেখা দিয়েছে।

সবশেষ বুধবার সকালে ভোলার ইলিশা ঘাট থেকে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরির ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া এস’টি খিজির-৫ নামে একটি সি ট্রাককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. দিদারুল ইসলাম।

সাগর ও নদীবেষ্টিত দ্বীপ জেলা ভোলা থেকে ঢাকা চট্টগ্রামসহ অন্য জেলায় যাতায়াতের প্রধান অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে নৌযান। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গত ২ মাসের বেশী সময় ধরে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকার পর ৩১ মে থেকে ফের চলাচল শুরু হয়। বিআইডব্লিউটিএর মতে, প্রতিদিন ভোলা থেকে ঢাকা,বরিশাল, লক্ষ্মীপুরসহ বিভিন্ন নৌ রুটে প্রায় অর্ধশত ছোট বড় লঞ্চ ও সি-ট্রাক চলাচল করে।

কিন্তু হঠাৎ ১৫ জুন পর্যন্ত সাধারণ ছুটির ঘোষণা ও লকডাউন শীতিল করায় অধিকাংশ রুটেই স্বাস্থ্য বিধি মানা হচ্ছে না। বিশেষ করে ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌ রুটে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বালাই নেই। মঙ্গলবার সকালে ভোলার ইলিশা লঞ্চঘাটে দেখা গেছে, এমভি পারিজাত লঞ্চ ও এসটি খিজির-৫ নামক সি-ট্রাক ঘাটে আসা মাত্রই হুড়োহুড়ি করে গা ঘেঁষেই লঞ্চে উঠেন যাত্রীরা। কে কার আগে লঞ্চে উঠবে তার প্রতিযোগীতা নিয়ে লঞ্চে উঠছে যাত্রীরা। পরিস্থিতি এমন যে পিপীলিকার মতো লঞ্চে উঠছে যাত্রীরা।

অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে ছাদে পর্যন্ত যাত্রী বোঝাই করে পারাপার করা হয়। অনেকে সিট না পেয়ে লঞ্চের বারান্দায় দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যাচ্ছে। আবার অনেকে লঞ্চে যেতে না পেরে চরম ঝুঁকি নিয়ে ট্রলার দিয়ে উতলা মেঘনা পাড়ি দিচ্ছেন। যাত্রীদের অভিযোগ,লঞ্চ কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা।

এমন চিত্র ভোলা ইলিশা লঞ্চ ঘাটসহ বিভিন্ন ঘাটে। তবে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ বলছে, তারা স্বাস্থ্যবিধি না মানলেও লঞ্চ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ভোলায় বিআইডব্লিউটিএর পক্ষ থেকে কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি। এমনকি সরকারি নৌ যান সি-ট্রাকে পর্যন্ত অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করছে।

যাত্রীরা বলেন,ভোলার ইলিশা থেকে ঢাকা চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলায় প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ যাওয়া-আসা করে। কিন্তু মানুষের তুলনায় লঞ্চ সি-ট্রাক কম। তাই বাধ্য হয়ে অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে যাচ্ছে।

তবে বিআইডব্লিউটিএর ভোলা নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক মো. কামরুজ্জামান জানান, লঞ্চগুলোকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী পরিবহন করতে হবে। কেউ তা না মানলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি আরো বলেন,যাত্রীদের চাপের কারণে ভোলা খেয়াঘাট থেকে যে লঞ্চ সন্ধ্যা ৭টায় ছেড়ে যাওয়ার কথা সেই লঞ্চ বেলা ১২টায় ছেড়ে দেয়া হয়।

ভোলা জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম সিদ্দিক জানান, জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে ভোলার ইলিশা ঘাট থেকে লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরির ঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা দিলে বুধবার সকালে এসটি খিজির-৫ নামে একটি সি ট্রাককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক।




banner728x90

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

banner728x90




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY AMS IT BD