শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

banner728x90

বরিশাল বিভাগের ১০ আসনের প্রার্থী চুড়ান্ত: ১১ আসন নিয়ে চিন্তিত মহাজোট

বরিশাল বিভাগের ১০ আসনের প্রার্থী চুড়ান্ত: ১১ আসন নিয়ে চিন্তিত মহাজোট

banner728x90

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোটে বিভক্ত হয়ে রাজনৈতিক ভাবে ভোটের লড়াইতে নামছে মহাজোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমাদানের কাজ শেষ করেছে। বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বি চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্ট। বরিশাল বিভাগে ২১ টি আসনের মধ্যে আআওয়ামীলীগের বর্তমান এমপি রয়েছেন ১৬ জন, জাপার ৩ জন, ওয়াকার্স পার্টির ১জন ও জেপির ১ জন। মহাজোট মুল দল আওয়ামী লীগের মনোনায়ন ফরম কিনেছেন ৩শতাধিক নেতা। আগামীকাল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহন করবে আওয়ামী লীগ নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড। তবে বিভিন্ন সুত্রের খবরে জানাগেছে বরিশাল বিভাগের ১০ আসনে প্রার্থী চুড়ান্ত করেছে মহাজোট এর মধ্যে আটজনের আসন চুড়ান্ত হলেও ২ জনকে কোন আসনে মনোনয়ন দেয়া হবে তা নিশ্চিত করা হয়নি। চুড়ান্ত ১০ জনের মধ্যে সাবেক চীফ হুইপ ও পার্বত্য ভুমি কমিশনের চেয়ারম্যান ( কেবিনেট মন্ত্রীর মর্যাদায়) আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বরিশাল ০১, জেবুন্নেসা আফরোজ বরিশাল ০৫, শিল্পমন্ত্রী আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু ঝালকাঠি ০২, জেপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু পিরোজপুর ০২, তোফায়েল আহমেদ ভোলা ০১/ ০২ এর যেকোনো একটিতে, আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ভোলা ০৪, জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ পটুয়াখালী ০২, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আ খ মো জাহাঙ্গীর হোসাইন পটুয়াখালী ০৩, ও জাপা মহাসচিব এবিএম রুহুল আমীন হাওলাদার বরিশাল ০৬ / পটুয়াখালী ০১ অথবা পটুয়াখালী ০৪ এর যেকোন একটি ডা. রুস্তম আলী ফরাজী জাপা এরশাদ পিরোজপুর ০৩ । বাকি ১১ আসনের প্রার্থী মনোনায়ন নিয়ে চিন্তিত মহাজোট এর মধ্য বরিশাল ০৩ ( বাবুগঞ্জ – মুলাদী) আসনে মহাজোট থেকে কোন প্রার্থী না দিয়ে উন্মুক্ত রাখা হতে পারে। এ আসনের বর্তমান সাংসদ ওয়াকার্স পার্টির শেখ টিপু সুলতান। এ আসনটি নবম সংসদে জাপার দখলে ছিল। জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু। এই আসনটি জাপা ও ওয়াকার্স পার্টি দাবী করেছে তবে ছাড় দিতে নারাজ আওয়ামী লীগ আবার ওয়াকার্স পার্টিতে রয়েছে আভ্যন্তরীণ কোন্দল। বরিশাল ০২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট তালুকদার মো: ইউনুস, তিনি গৌরনদীর বাসিন্দা। তাই তাকে ছাড় দিতে চায়না স্হানীয় আওয়ামী লীগ। এ আসনে মনোনয়ন পেতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন হেভিওয়েট আরো ৬ প্রার্থী। বরিশাল ০৪ আসনে বর্তমান এমপি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ তবে এখানে দলীয় কোন্দল রয়েছে সেক্ষেত্রে মনোনয়নের দাবীদার হেভিওয়েট আরো চারজন। বরিশাল ০৬ আসনের বর্তমান এমপি জাপার নাসরিন জাহান রত্না তবে এবার তিনি মনোনয়ন নাও পেতে পারেন। আভ্যন্তরীণ কোন্দল, দূর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির কারনে সমালোচিত পিরোজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বর্তমান এমপি এ কে এম এ আউয়ালের মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা নাই বললেই চলে এ আসনে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় আইন বিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম অথবা সাবেক ছাত্রনেতা সাজ্জাদ সাকীব বাদশা মনোনয়ন পেতে পারেন। বরগুনা ০১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ৫২ জন, এ আসনের বর্তমান এমপি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথের বিরুদ্ধে প্রায় সব নেতা। এ আসনে আলোচনার শীর্ষে রয়েছে ২০০১ সালের উপ নির্বাচনের প্রার্থী গোলাম সরোয়ার ফোরকান। বরগুনা ০২ আসনের বর্তমান এমপি শওকত হাসানুর রহমান রিমন, তার পরিবারের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ বিতর্কিত ভুমিকার কারনে তিন উপজেলার সকল নেতা কর্মী তার বিরুদ্ধে, এ আসনে মনোনয়ন পেতে পারেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু তবে এই আসনের সাবেক সাংসদ নুরুল ইসলাম মনির যুক্তফ্রন্টে যোগদানের গুঞ্জন রয়েছে যদি শেষ পর্যন্ত সেটা হয় সেক্ষেত্রে এ আসনটি দাবী করবে তারা। পটুয়াখালী ০১ আসনে যদি জাপার এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে মনোনায়ন না দেয়া হয় সেক্ষেত্রে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট শাহজাহান মিয়া অথবা কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য গবেষণা সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন দুজনের যেকোনো একজন মনোনয়ন পাবেন। পটুয়াখালী ০৪ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩২ জন, বর্তমান সাংসদ সাবেক প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান তালুকদার এ আসনটি জাপা মহিসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারও দাবী করছে তবে এ আসনে মনোনয়ন পেতে পারেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাদারীপুর ৩ আসনের বর্তমান সাংসদ কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম তাকে এখান থেকে নির্বাচন করার দাবী জানিয়েছেন স্হানীয় নেতা কর্মিরা। ঝালকাঠি ০১ আসনের বর্তমান সাংসদ বজলুল হক হারুন, মুক্তিযুদ্ধে তার পরিবারের বিতর্কিত ভুমিকা ও জামায়াত লালনের অভিযোগে তিনি মনোনয়ন নাও পেতে পারেন। ভোলা ০২ আসনের বর্তমান সাংসদ আলী আজম মুকুল এই আসনে প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে চমক থাকতে পারে। ভোলা ০৩ আসনের বর্তমান সাংসদ নুরুন নবী চৌধুরী শাওন তবে এবার মনোনয়ন পেতে পারেন সাবেক সাংসদ মেজর অবসরপ্রাপ্ত জসিম উদ্দিন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

banner728x90




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY AMS IT BD