বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নলছিটি সিটিজেন ফাউন্ডেনের উদ্যোগে কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম চলমান বানারিপাড়ায় জাসদ নেতা এ্যাড. আনিচুজজামানের দ্বিতীয় দিনের মত অসহায় ও দুঃস্থদের মাঝে ত্রান বিতরন অব্যহত আমতলী থানার ওসি তদন্ত মনোরঞ্জন মিস্ত্রীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের বিনামূল্যে বিতরণের জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করলো যুবকরা বাউফলে ত্রান বিতরণ বাকেরগঞ্জে পথে-প্রান্তরে আদালত, তিনজনকে সাজা ‘হোম কোয়ারেন্টিন’ নৌকায় বাড়ল ব্যাংক লেনদেনের সময় বরিশালে জনসমাগম ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনীর টহল দেশের প্রত্যেক উপজেলা থেকে দুজনের নমুনা পরীক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

banner728x90

ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে আত্মগোপনে নলছিটির সেই যুবক

ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে আত্মগোপনে নলছিটির সেই যুবক

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে করোনাভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়িয়ে ঝালকাঠিতে আতঙ্ক সৃষ্টিকারী যুবক ইব্রাহিম খান শাকিল আত্মগোপনে চলে গেছেন। অসত্য তথ্য দিয়ে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সকালে ফেসবুকে তিনি পোস্ট দেয়ার পর একাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারী ওই পোস্টটির স্ক্রীনশট দিয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেন। অনেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে গুজব সৃষ্টির অপরাধে তাকে আটকের দাবি জানান।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে এলে তাদের নির্দেশে ওই যুবককে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক টিম খুঁজতে থাকে। অবস্থা প্রতিকূলে দেখে ওই যুবক ঝালকাঠি জেলা ছেড়ে অন্যত্র আত্মগোপন করেন।

শাকিলের নিজ এলাকা নলছিটি উপজেলার নাচনমহল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামসহ সম্ভাব্য স্থানে হানা দিয়েও তাকে খুঁজে পায়নি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া এ বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল ও দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে র‌্যাবসহ অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকেও গুজবের ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

ইব্রাহিম খান শাকিল তার ফেসবুক আইডি (Ibrahim Khan Shakil) থেকে দেয়া ওই পোস্টে উল্লেখ করেন, ‘ঝালকাঠিতে গত ২৪ ঘন্টায় ১০ জন করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত করা হয়েছে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ঝালকাঠি। ২৫ মার্চ ২০২০’।

তবে ২৫ মার্চ সিভিল সার্জনের কি বিবৃতি দিবেন তা তিনি আগাম (২৪ মার্চ) কিভাবে ফেসবুকে জানালেন এ নিয়ে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা সিভিল সার্জন শ্যামল কৃষ্ণ হাওলাদার বলেন,ঝালকাঠিতে ১০ জন করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্তের বিষয়টি সম্পূর্ণ অসত্য। করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্তকরণের কোন ব্যবস্থা ঝালকাঠিতে নেই।

এদিকে ফেসবুকে ওই পোস্ট দেয়ার পর করোনা নিয়ে বেশ আতঙ্ক ছড়িয়েছে বরিশাল বিভাগজুড়ে। এ বিভাগে এখন পর্যন্ত কোন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান
না পাওয়া গেলেও শাকিল তার পোস্টে ঝালকাঠিতে ১০ জন করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন। তবে নানাভাবে অনুসন্ধান চালিয়ে ঝালকাঠি জেলায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগীর অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।




banner728x90

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

banner728x90




© All rights reserved by barishalobserver.Com
Design & Developed BY AMS IT BD